প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আজকের ম্যাচে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। তৃতীয় ওয়ানডেতে আজ শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে মাঠে নামবে টাইগাররা।

সিরিজ নিশ্চিত হওয়ায় জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে আজ এক্সপেরিমেন্ট চালানোর দারুণ সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ। তবে শুধু এক্সপেরিমেন্ট নয়, মাশরাফিদের প্রধান টার্গেট আজ জিম্বাবুয়েকে ‘বাংলাওয়াশ’ করা।

একাদশে আজ কয়টি পরিবর্তন দেখা যাবে, কাকে কাকে বিশ্রাম দেওয়া হবে কিংবা নতুন কে কে সুযোগ পাচ্ছেন তা নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতেও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে বিসিবি সূত্রে জানা গেছে। একাদশ গঠনের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন সাধারণত অধিনায়ক, কোচ, নির্বাচক, ম্যানেজার তথা টিম ম্যানেজমেন্ট। আগামী বিশ্বকাপ দলের কথা মাথায় রেখেই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে।

তবে স্বয়ং টাইগার ক্যাপ্টেন মাশরাফি মনে করেন, দল নিয়ে খুব বেশি এক্সপেরিমেন্ট চালানোর সুযোগ নেই। দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল না থাকার পরও শেষ তিন ওয়ানডেতে অসাধারণ খেলেছেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার লিটন দাস ও ইমরুল কায়েস। এছাড়া পেস বোলিং অলরাউন্ডারের ভূমিকা ভালোভাবেই পালন করেছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

এদিকে, অভিষেকের স্বপ্ন পূরণের ক্ষণ বিষাদে রূপ নিয়েছে ফজলে মাহমুদ রাব্বির। প্রায় ১৫ বছর ঘরোয়া ক্রিকেট খেলার পর এই জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়ে প্রথমবার জাতীয় দলে ডাক পান তিনি। অভিষেকও হয়ে যায় প্রথম ম্যাচে। সেই ম্যাচে শূন্য রানে আউট হওয়ার পর কাজে লাগাতে পারেননি দ্বিতীয় সুযোগও। দ্বিতীয় ম্যাচেও ফিরেছেন শূন্য রানেই। তাই তৃতীয় ওয়ানডেতে তার সুযোগ পাওয়া নিয়ে শঙ্কা আছে যথেষ্টই।

অন্যদিকে, বিশ্বকাপ দলের কথা চিন্তা করেই জিম্বাবুয়ে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচের জন্য দলে ডাকা হয়েছে সৌম্য সরকারকে। ঘরোয়া লিগে দুর্দান্ত পারফর্ম করছেন তিনি। সৌম্যর বড় প্লাস পয়েন্ট হচ্ছে ব্যাটিং অর্ডারে সে ওপেনও করতে পারে, আবার সাত নম্বর পজিশনেও ব্যাট করতে পারেন।

তবে সেই এশিয়া কাপ থেকেই দলের সঙ্গে রয়েছেন আরিফুল। কিন্তু এখনো অভিষেক হয়নি। তার বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আরিফুলের ম্যাচ খেলাটা আসলে অনেক জরুরি হয়ে গিয়েছে এবং সেভাবে চিন্তা ভাবনা চলছে।’

এছাড়া তিন নম্বরে সুযোগ পেতে পারেন নাজমুল হোসেন শান্তও। আর মেহেদি হাসান মিরাজ এবং মোস্তাফিজুর রহমানকে বিশ্রাম দিয়ে পরীক্ষার সুযোগ দেওয়া হতে পারে আরিফুল হক ও আবু হায়দার রনিকে।

সাকিব নেই, তামিম নেই। তারপরও সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে জিম্বাবুয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাই গড়ে তুলতে পারেনি বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। এর পেছনে কারণ একটাই- বাংলাদেশ দল এখন অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। এশিয়া কাপ থেকেই দলে এই হাওয়া লেগেছে। আজকের শেষ ম্যাচেও আত্মবিশ্বাসে বলীয়ান হয়ে বাংলাদেশ উড়িয়ে দিতে চায় জিম্বাবুয়েকে। সেক্ষেত্রে দুইটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামতে পারে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ
১. লিটন কুমার দাস
২. ইমরুল কায়েস
৩. ফজলে মাহমুদ রাব্বি/সৌম্য সরকার/নাজমুল হোসেন শান্ত
৪. মুশফিকুর রহিম
৫. মোহাম্মদ মিথুন
৬. মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ
৭. মেহেদি হাসান মিরাজ/আরিফুল হক
৮. মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন
৯. মাশরাফি বিন মর্তুজা
১০. মুস্তাফিজুর রহমান/আবু হায়দার রনি
১১. নাজমুল ইসলাম অপু

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ