প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসের বাস্তব প্রতিফলন দেখা যাবে নির্বাচনে’

আশিক রহমান : বিএনপিসহ অনেক রাজনৈতিক দল ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি। এ নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। বিতর্ক এখনো চলছে। এর মধ্যেই একাদশ সংসদ নির্বাচন চলে এসেছে। এই সময়ে বারবার ফিরে আসছে ৫ জানুয়ারির নির্বাচন প্রসঙ্গ। প্রশ্ন উঠছে, আবারও কী দেশে ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটি নির্বাচন হতে যাচ্ছে? অথবা নির্বাচন কী আদৌ হবে? প্রধানমন্ত্রী সুষ্ঠু নির্বাচনের যে আশ্বাস দিয়েছেন তা কি রক্ষা হবে, বাস্তবে কী এর প্রতিফলন দেখা যাবে? নাকি রাজনৈতিক বক্তব্য হিসেবেই থেকে যাবে? রাজনৈতিক বিশ্লেকেরা মনে করেন, প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসের বাস্তব প্রতিফলন দেখা যাবে আগামী নির্বাচনে। ৫ জানুয়ারির পুনরাবৃত্তি আর ঘটবে না।

নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়েও কোনো সংশয় প্রকাশের বাস্তবসম্মত কারণ নেই, তাছাড়া সাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই। তাই নির্বাচন হবে নির্ধারিত সময়েই।

এ প্রসঙ্গে শিক্ষাবিদ ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেছেন, একটি অবাধ, সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠান বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা সরকারের। সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যাপারে ইতোমধ্যেই সরকারের কাছ থেকে যথেষ্ট ইতিবাচক ইংগিত দেওয়া হয়েছে। এমনকি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও একাধিকবার বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে। আমরা আশা করছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই উচ্চারণ বাস্তবে প্রতিফলিত হবে।
শিক্ষাবিদ ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, ২০১৪ সালের মতো একই ভুল করবে না সরকার। বিরোধীদলগুলোও আগের পথে হাঁটবে না। সে জন্যই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে। ২০১৪ সালের নির্বাচনে ১৫৩টি আসনে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা না হলেও এবার সেটি হবে না, সব আসনেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে বিএনপি না এলে সব আসনেই একাধিক প্রার্থী থাকবে। আমার ধারণা, এবার একটু ভিন্নভাবে নির্বাচন হবে। বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করলেও দেখা যাবে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন হচ্ছে। কারণ তখন শক্তিশালী কোনো প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী থাকবে না।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে, এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই এবং সেটি নিয়মানুযায়ী যথা সময়ে যথাযথভাবে হবে। এই নির্বাচন কোনো অবস্থাতেই ৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি অথবা ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মতো হবে না, যে নির্বাচনে প্রধান রাজনৈতিক বিরোধীদল অংশগ্রহণ করেনি। তিনি আরও বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে অনেক আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন অনেকেই, এবার এ ধরনের ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা একেবারে নেই। আমার ধারণা, এবার একটি আসনেও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কেউ নির্বাচিত হবেন না। সব জায়গায় প্রার্থী থাকবেন। বিএনপিসহ সব দলই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। নির্বাচন হবে না বলে যারা শঙ্কা প্রকাশ করছেন, আমার মনে হয় তাদের পর্যবেক্ষণ বা মূল্যায়ন সঠিক নয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ