প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যুক্তরাষ্ট্রে দাপট বাড়ছে তেলেগু, বাংলা ভাষার

মুসফিরাহ হাবীব : যুক্তরাষ্ট্রে দাপট বাড়ছে তেলেগু আর বাংলা ভাষার। অতিদ্রুত হারে সেখানে বাড়ছে এই জনগোষ্ঠীর মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রের ‘সেন্টার ফর ইমিগ্রেশন স্টাডিজ’ এর প্রকাশিত প্রতিবেদনে বেরিয়ে এসেছে এ তথ্য।

এতে বলা হয়েছে, গত সাত বছরে অর্থাৎ, ২০১০ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে তেলেগুভাষী অধিবাসীর সংখ্যা বেড়েছে ৮৬ শতাংশ। এরপরই আছে বাংলাভাষীদের সংখ্যা (৫৭ শতাংশ) এবং তৃতীয় স্থানে আছে তামিল জনগোষ্ঠী (৫৫ শতাংশ)।

অন্যদিকে, শীর্ষ ১০ ভাষাভাষীর জনগোষ্ঠীর মধ্যে পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে হিন্দি (৪২ শতাংশ)। ষষ্ঠ ও সপ্তম স্থানে রয়েছে যথাক্রমে উর্দু ও পাঞ্জাবী ভাষা, নবম স্থানে রয়েছে গুজরাটি।

২০১০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাভাষী অধিবাসী ছিল ২ লাখ ২৩ হাজার। ২০১৭ সালে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় সাড়ে তিন লাখে। ওদিকে, তেলেগুভাষী অধিবাসীর সংখ্যা ২০১৭ সালে দাঁড়িয়েছে ৪ লাখে। এই সংখ্যা ২০১০ সালের তুলনায় দ্বিগুণ বেশি।

পরিসংখ্যান থেকে দেখা যাচ্ছে, জনসংখ্যা বৃদ্ধির হিসেবে বাংলা বা তেলুগুভাষী জনগোষ্ঠীর ধারে কাছে নেই চীনা কিংবা স্প্যানিশ ভাষীরা। যদিও যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ শহরে ইংরেজি ছাড়া অন্যান্য ভাষাগোষ্ঠীর জনসংখ্যাও উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ছে। ২০১৭ সালের জনগণনার তথ্যানুযায়ী, দেশটির প্রায় সাড়ে ৬ কোটি মানুষ বাড়িতে ইংরেজি ছাড়া অন্য ভাষায় কথা বলে।

তবে শতাংশের হিসেবে তেলুগু ভাষার মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধির ধারে কাছে আর কেউ নেই। দক্ষিণ ভারতের রাজ্যগুলোর এক বিশাল জনগোষ্ঠীর ভাষা হচ্ছে এই তেলেগু। গত কয়েক দশকে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় এ রাজ্যগুলো থেকে বিপুল সংখ্যক ছাত্রছাত্রী যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে পড়তে যাচ্ছে এবং পরে তারা সেখানেই থেকে যাচ্ছে।

তাছাড়া, তথ্যপ্রযুক্তির ব্যাপক প্রসারের কারণে অনেকেই আইটি সেক্টরে ক্যারিয়ার গড়তে যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছেন। হায়দরাবাদ ও অন্ধ্রপ্রদেশে প্রচুর ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ আছে। তাই আইটি সেক্টরে কাজের জন্য ওইসব এলাকা থেকেই বহু মানুষ কাজ পাচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্রে তেলুগুভাষী জনগোষ্ঠীর বাড়ার পেছনে এসবই মূল কারণ বলে মনে করা হচ্ছে।

আর সামগ্রিকভাবে গোটা যুক্তরাষ্ট্রেই বিদেশি বাড়ার ফলে ইংরেজি বাদে ভিন্ন ভাষায় কথা বলা মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। নিউ ইয়র্ক এবং হিউস্টনে এ সংখ্যা প্রায় ৪৯ শতাংশ, লস এঞ্জেলেসে ৫৯ শতাংশ, শিকাগোয় ৩৬ শতাংশ এবং ফিনিক্সে ৩৮ শতাংশ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ