প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ক্রিকেটকে বিদায় বললেন ব্রাভো

যুগান্তর :  আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিলেন ডোয়াইন ব্রাভো। ১৪ বছরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ইতি টানলেন ক্যারিবীয় এই অলরাউন্ডার। ক্রিকেট থেকে বিদায় নেয়ার এটাই সেরা সময় হিসেবে মানছেন ৩৫ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিলেও ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট চালিয়ে যাবেন এ অলরাউন্ডার। আইপিএল, বিপিএলসহ বিগ ব্যাশ লিগে খেলে যাবেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায়ের ঘোষণা দিয়ে ব্রাভো বলেন, ‘১৪ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ইতি টানলাম। দেশের হয়ে অভিষেকের দিনটা এখনও মনে আছে। ২০০৪ সালের জুলাইয়ে লর্ডসে মেরুন ক্যাপ মাথায় প্রথম নেমেছিলাম। ম্যাচটা ছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। সেদিন নিজেকে ধন্য মনে করেছিলাম। সবাইকেই একদিন থামতে হয়। নতুন প্রজন্ম উঠে আসুক। অবশ্য পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে খেলা চালিয়ে যাব। ভক্তদের আনন্দ দেওয়ার চেষ্টা করব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার সাফল্যের পেছনে যারা রয়েছে, তাদের সবাইকে ধন্যবাদ। পরিবার সবসময় আমার পাশে ছিল। যারা আমাকে সমর্থন করেছেন। সেই সমস্ত ভক্তদের শুভেচ্ছা জানাই। জাতীয় দলে খেলার সময় অনেক বিখ্যাত প্লেয়ারদের সঙ্গে ড্রেসিংরুমে সময় কাটিয়েছি। যা আমার স্মৃতিতে থাকবে।’

২০০৪ সালের এপ্রিলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ক্রিকেটের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয় ব্রাভোর। এরপর টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ হয় তার। অভিষেকের পর থেকেই নিজের পারফরম্যান্স দিয়ে জাতীয় দলের অপরিহার্য অংশ হিসেবে পরিণত হন।

উইন্ডিজের হয়ে ব্রাভো খেলেছেন ৪০টি টেস্ট, ১৬৪টি ওয়ানডে এবং ৬৬টি টি-টোয়েন্টি। ব্যাট হাতে ওয়ানডে ক্রিকেটে ১৬৪ ম্যাচে দুই সেঞ্চুরিতে ২ হাজার ৯৬৮ রান সংগ্রহ করেন তিনি।

টেস্টের সাদা পোশাকে ৪০ ম্যাচে সংগ্রহ করেন ৩ সেঞ্চুরিতে ২ হাজার ২০০ রান। আর টি-টোয়েন্টির সংক্ষিপ্ত ফর্মেটে তার সংগ্রহ ৬৬ ম্যাচে চারটি ফিফটিতে ১ হাজার ১৪২ রান। সবমিলিয়ে তিন ফর্মেটের ক্রিকেটে তার সংগ্রহ ৬ হাজার ৩১০ রান।

ব্যাটের পাশাপাশি বল হাতেও সফল ব্রাভো। তিন ফর্মেটের ২৭০ ম্যাচে তার শিকার ৩৩৭ উইকেট।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ঝামেলার কারণে ২০১৪ সালের অক্টোবরের পর দেশের হয়ে ওয়ানডে খেলা হয়নি তার। সবশেষ টেস্ট খেলেছেন ২০১০ সালে।  উৎসঃ যুগান্তর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ