প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুমিল্লায় প্রধান বিচারপতি
মামলার জট কমাতে সবাইকে আন্তরিক হতে হবে

মাহফুজ নান্টু, কুমিল্লা : কুমিল্লায় প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, জনসংখ্যা বাড়ার সাথে সাথে মামলার সংখ্যাও বাড়ছে। সে অনুযায়ী মামলার নিষ্পত্তি হচ্ছে না। এর জন্য দায়ী অপর্যাপ্ত বিচারক ও এজলাস সংকট। মামলার সংখ্যা কমাতে বিচারক ও আইনজীবীদের আরো আন্তরিক হতে হবে। আদালত তার কর্মঘন্টা পূর্ণ ব্যবহার করতে হবে এবং আইনজীবীদের মামলার বার বার শুনানির প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। বার ও বেঞ্চ সহযোগিতামূলকভাবে এগিয়ে না এলে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়।

বৃহস্পতিবার কুমিল্লা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি এসব কথা বলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন আইন সংসদ ও বিচার মন্ত্রী এডভোকেট আনিসুল হক ও কুমিল্লা-৬ আসনের এম পি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। বক্তব্য রাখেন আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো.জহিরুল হক ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড.আবুল হাশেম খান। সভাপতিত্ব করেন কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ কে এম সামছুল আলম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইনমন্ত্রী বলেন,দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে চায় বর্তমান সরকার। এই সরকার ক্ষমতায় আসার পর দেশের ৬৪টি জেলার আদালত গুলোতে বিচার কার্য গতিময় করে তুলতে বিচারক নিয়োগ, এজলাস ও জনবল সংকট দূর করেছেন। কুমিল্লা বিভাগের বিষয়ে তিনি বলেন,কুমিল্লা বিভাগের প্ল্যান হয়ে গেছে। কিছু কারণে কুমিল্লা বিভাগ ঘোষণা করতে বিলম্ব হচ্ছে। তবে কথা দিলাম কুমিল্লার নামেই কুমিল্লা বিভাগ হবে।

এর আগে প্রধান বিচারপতি ফিতা কেটে ও পায়রা উড়িয়ে নব নির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন।
উল্লেখ্য, ৬২ কোটি ১৮ লাখ ৫৬ হাজার টাকা ব্যয়ে ১২ তলা ভীত বিশিষ্ট ভবনের ১০ তলা আদালত ভবন নির্মাণ করা হয়। দুপুরে প্রধান বিচারপতি জেলা আইনজীবী সমিতির তাঁকে দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ