প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘মিটু’-র হাওয়া এবার নেপালে

ইমরুল শাহেদ : ভারতীয় অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তের দ্বিতীয় দফা যৌন হয়রানির অভিযোগের পর ভারতে আনুষ্ঠানিকভাবেই #মি টু আন্দোলন শুরু হয়েছে। গত বছর হলিউডে প্রযোজক হার্ভে ওয়েনস্টেইন এবং কেভিন স্পেসিসহ কয়েকজনকে দিয়ে হলিউডে এই আন্দোলন শুরু হয়। তনুশ্রীর অভিযোগের পর ভারতীয় গণমাধ্যমে একের পর এক ভুক্তভোগীদের অভিযোগ আসতে শুরু করে। অভিযুক্ত হয়ে যান প্রতিমন্ত্রী এমজে আকবর, সোহেল শেঠ, চেতন ভগত, সাজিদ খান, বিনোদ দুয়া, অনু মালিক। তারই ধারাবাহিকতায় নেপালের নারীরাও তাদের যৌন হয়রানির অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে উদ্যোগী হন।

নেপালের যেসব নারীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করায় উদ্যোগী হয়েছেন, তাদের মধ্যে দুই নারী কাঠমান্ডু মেট্রোপলিটন সিটির দুই মেয়াদের মেয়র কেশব স্থাপিতের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন।

কাঠমান্ডু মেট্রোপলিটন সিটি দপ্তরের সাবেক কর্মচারি রাশমিলা প্রজাপতি বলেছেন, মেয়রের যৌন প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কোনো কারণ ছাড়াই তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছ। প্রজাপতি বলেছেন, ‘মেয়রের প্রথম মেয়াদে তিনি আমাকে কাজ ও পদোন্নতি বিষয়ে আলোচনার জন্য তার সঙ্গে গোপন কাটানোর জন্য বার বারই প্রলুব্ধ করতে থাকেন। তাতে আমি রাজি হইনি।’
অভিয্ক্তু প্রাক্তন মেয়র অবশ্য সংবাদপত্রে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ আগেই খারিজ করে দিয়েছেন। কিন্তু রাশমিলা এই প্রথম বারই স্থাপিতের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেননি। তিনি দুই বছর আগেও স্থাপিতের চরিত্র নিয়ে বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে লিখেছেন।

কেশব স্থাপিত বর্তমানে প্রভিন্স৩ ফেডারেল সরকারের মন্ত্রী। তিনি বলেছেন, তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ একেবারেই ভিত্তিহীন। তিনি বলেন, ‘রাশমিলা কেএমসির একজন অস্থায়ী কর্মচারি। আমি তাকে চিনিও না।’
তিনি বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে আমি মামলা করতে পারি।’এছাড়া স্ল্যাম কবি ও রিপাবলিকা ন্যাশনাল ডেইলির সাবেক সংবাদদাতা উজওয়ালা মাহারজানও ফেসবুকে স্থাপিতের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন।
জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের মোহনা আনসারি অবশ্য মনে করছেন প্রতিবাদী নেপালি মেয়েদের জন্য রাস্তা ততটা মসৃণ নয়।
তিনি জানালেন, দুই ধর্ষিতার হয়ে লড়ছেন তিনি। ধর্ষকদের বিরুদ্ধে মুখ খোলায় কার্যত পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে ওই দুই নির্যাতিতাকে। দি হিমালয়ান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ