প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে মিয়ানমার : জাতিসংঘ 

আসিফুজ্জামান পৃথিল : মিয়ানমারে রোহিঙ্গা নাগরিকদের ওপর এখনও গণহত্যা চালানো হচ্ছে। এমন মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের শীর্ষ তদন্ত কর্মকর্তা। জাতিসংঘ ফ্যাক্টস ফাইন্ডিং মিশনের প্রধান মনে করেন, ২০১৭ সালের পর থেকে কার্যত কিছুই পরিবর্তন হয়নি। বুধবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের একটি বৈঠকের আগে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে ওই কর্মকর্তা মার্যুকি দারুসমান বলেন, ‘মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের ওপর এখনও নৃশংসতা অব্যাহত রয়েছে। সেখানকার রোহিঙ্গারা এখনও তীব্র অত্যাচার ও কঠোর নিষেধাজ্ঞার শিকার হচ্ছে।’

যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্রসহ আরও ছয়টি সদস্য রাষ্ট্রের অনুরোধে এই বৈঠকটি আয়োজন করে ১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদ। এ বছরের সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের ফ্যাক্টস ফাইন্ডিং মিশনের এক প্রতিবেদনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে হওয়া সহিংসতায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি উঠে আসে। এ রিপোর্টে প্রথমবারের মতো রোহিঙ্গাদের ওপর পরিচালিত নির্যাতনকে গণহত্যা বলে স্বীকৃতি দেয় জাতিসংঘ।
দারুসম্যান বলেছেন, প্রতিদিনই রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছে। এখনও আড়াই থেকে ৪ লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমারে কোনমতে টিকে রয়েছে। তাদের এখন কষ্টের অন্ত নেই। দারুসম্যান স্পষ্ট ভাষায় বলেন, ‘এটি এক চলমান গণহত্যা।’

মিয়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ তদন্ত কর্মকর্তা ইয়াঙ্গে লি বলেন, ‘আমি সহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সকলেই ভেবেছিলাম, অং সান সুচির শাষণামলে মিয়ানমারে অতিকের তুলনায় পরিস্থিতি বদলাবে। কিন্তু আমরা ভুল ছিলাম। পরিস্থিতি আরোও খারাপ হয়েছে।’

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট কয়েকটি সীমান্ত চৌকিতে কথিত সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর বড় ধরণের সামরিক হামলা শুরু করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। এ ঘটনায় ৭ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এর আগেই ৩ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিলো। মিয়ানমারে টিকে থাকা রোহিঙ্গাদের ৪ গুণেরও বেশি বাংলাদেশে শরণার্থী হিসেবে রয়েছে। মিয়ানমার বর্তমানে প্রচার করছে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে তারা প্রস্তুত। গার্ডিয়ান, বিবিসি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ