প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্যারিস্টার মইনুলের মামলায় খালেদা আজ জেলে : বিপ্লব বড়ুয়া

জিয়াউদ্দিন রাজু : আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেছেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের নির্দেশে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নামে মামলা হয়েছিল।

সেই মামলাতে এখন খালেদা জিয়া কারাগারে রয়েছেন। বিএনপি এখন সেই মইনুল হোসেনের সঙ্গেই ঐক্য করেছে। যেটা তাদের রাজনৈতিক দৈন্য দশা ছাড়া আর কিছু নয়।

বৃহস্পতিবার আমাদের সময়ডটকমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ১/১১ এর সময় বিএনপি নেত্রীর বিরুদ্ধে গ্যটকো ও নাইকো দূর্নীতি মামলাটি হয়েছিল মইনুল হোসেনের প্রশাসনিক নির্দেশে। কারণ মইনুল হোসেন ছিলেন তখন তত্তাবধায়ক সরকারের আইন মন্ত্রনালয়ের উপদেষ্টা। আর বিএনপির নেতারা এখন ঐক্য করেন সেই মইনুলের সঙ্গে। যিনি তাদের দলের প্রধানকে মামলা দিয়ে জেলে পাঠিয়েছেন।

তিনি বলেন, এই ঐক্য করা হয়েছে মূলত সরকারের রিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করার জন্য। মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে নয়, যেনতেন ভাবে সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্যই এই ঐক্য করা হয়েছে। এই ঐক্য জাতির জন্য কোন সুফল বয়ে আনবে না। এমন ধরনের ঐক্য করে জাতির সঙ্গে প্রতারণা করেছে বিএনপি।

বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, ছয় বছরের মিত্র এনডিপি ও ন্যাপ বলছে যে, তারা অগণতান্ত্রিক শাসন ব্যাবস্থা প্রতিষ্ঠা করার জন্য কাজ করছে। মিউচ্যুয়াল সার্থের জন্য তথা কথিত রাজনৈতিক ঐক্য। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ে দিবালোকের মত পরিস্কার হয়েছে যে, বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। যখন বিএনপিতেই তারেককে সরিয়ে দেওয়ার দাবি উঠেছে, তখন বিএনপি সমালোচনার সুরক্ষা নিতে এবং আপাতত জনরোষ থেকে বাঁচার জন্য ড. কামাল হোসেনের হাতে নেতৃত্ব তুলে দিয়েছে তারা।

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, এই ড. কামাল হোসেন ১/১১ এর সময় বিএনপির নেত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে স্টেটমেন্ট দিয়েছিলেন। সেদিন ড. কামাল সত্য বলে থাকলে আজকে কেন তাদের পক্ষ নিয়েছেন?

সম্পাদনা: খোকন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ