প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ঐক্যফ্রন্টের নেতারা জানতেন ফোনালাপ ফাঁস হতে পারে’

অনলাইন ডেস্ক : ​​ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের ফোনালাপ ফাঁস হচ্ছে একের পর এক। দৃশ্যত মনে হচ্ছে উনারা এটা পাত্তা দিচ্ছেন না। কারণ একই মানুষ পরপর কয়েকদিন নির্দ্বিধায় ফোনে কথা বলে গেছেন। সেই আলাপ দিনের পর দিন ধরে ফাঁস হচ্ছে। উনারা জানেন এই ফোন-কল রেকর্ড করা হয়। উনারা এটাও জানেন এই ফোন-কলের কথা ফাঁস হতে পারে। তারপরেও উনারা সাধারণ ফোন লাইনে কথা বলা বন্ধ করছেন না।

আমি এই ফোন কল ফাঁসের ঘটনাকে অত্যন্ত ইতিবাচক হিসেবে দেখি। ঐক্য ফ্রন্টের নেতারা জানেন তাদের লুকানোর কিছু নেই। তাই উনারা তাদের মধ্যকার রাজনৈতিক কার্যকলাপ সম্পর্কিত কথাবার্তা লুকানোর চেষ্টাও করছেন না।

একটা রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় কত ধরণের আলাপ থাকে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব থাকে, নানা টানাপোড়েন থাকে এসব যারা রাজনীতি কখনো করেননি তারা হয়তো জানেন না। কিন্তু এসব খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। এই আলাপগুলোও স্বাভাবিক। এতে আপত্তিমূলক কিছুই নাই। একটা রাজনৈতিক জোট গড়ে ওঠার সাথে সাথে স্বাভাবিকভাবেই এই ধরণের আলাপগুলো আসে।

রাজনীতি কোন বিশুদ্ধতাবাদী ধর্মচর্চা নয়, এখানে রাগ থাকবে, ক্ষোভ থাকবে, টানাপোড়েন থাকবে, স্বার্থ থাকবে। থাকবে রাজনৈতিক পরিকল্পনা বা রণকৌশলের আলাপ আলোচনাও। এসব কিছুই স্বাভাবিক অনুষঙ্গ।

আমি ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের আহ্বান জানাবো সাধারণ ফোনের লাইনেই তাঁদের কথা বলা অব্যাহত রাখতে। আপনারা আপনাদের এভাবেই স্বচ্ছ রাখতে পারবেন যা দেশবাসীর জন্যও একটা বড় অর্জন।

উইকিলিক্স যখন গোপন মার্কিন দলিল গুলো প্রকাশ করলো আমরা চমকে উঠেছিলাম। ক্ষমতার অন্দরমহলে কী কী আলাপ চলে সেটা দেখতে পেয়ে বিস্মিত হয়েছিলাম। তবে আমরা এইটা বুঝি, রাজনীতি আর ক্ষমতার অলিন্দে বিস্ময়কর, বিস্ফোরক আর ভয়াবহ আলাপ চলে যার খোঁজ আমরা পাইনা।

ক্ষমতাসীনেরা এই আলাপ রেকর্ড করে রাষ্ট্রীয় রিসোর্স ব্যবহার করে, তাদের ক্ষমতাকে আরো নিরঙ্কুশ করতে। তবে বাংলাদেশে ক্ষমতার সাথে সংশ্লিষ্ট আলাপ একটাই ফাঁস হয়েছিলো। সেটা মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচার সম্পর্কিত স্কাইপের আলাপ। এই আলাপের লিগ্যাল ইম্পলিকেশন ছিলো।

ঐক্য ফ্রন্টের ফোনালাপ, নির্দোষ দৈনন্দিন আলাপ। কাউকে খাড়াইয়া যাওয়া আর বসাইয়া দেয়ার নেগোশিয়েশন হইতেছে না। এই ধরণের কথোপকথন ফাঁস হলেও কোন অসুবিধা নাই। ঐক্য ফ্রন্টের নেতারা এইভাবেই ফোনের আলাপ চালায়ে যাবেন।

ইন ফ্যাক্ট, বিরোধী রাজনৈতিক মতের মানুষের কোন গোপনীয়তা নাই এটা সবাই জানেন। সমস্ত ফোনের কথা রেকর্ড হয়। ফোন সেট জব্দ করে সেটার ফরেন্সিক টেস্ট হয়। ফোন সেটে বাগ ঢুকিয়ে তথ্য হাতিয়ে নেয়া হয়। ফেইসবুকের কাছে থেকে তথ্য নেয়া হয়। কোথাও একটু ছুতা পেলে ফাঁসিয়ে দেয়া হয়। শুধু ফোনালাপের জন্যই অনেকে জেইলে গেছেন। তাহলে আর ভয় কী?

নতুন জোটের এই স্বচ্ছতা অব্যাহত থাকুক। ফোনালাপ ফাঁস জিন্দাবাদ।

(ফেসবুকে পিনাকী ভট্টাচার্য)

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত