প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: ড.কামাল

আশরাফ চৌধুরী রাজু, সিলেট : ড. কামাল হোসেন বলেছেন হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সংবিধানের ৭নং অনুচ্ছেদে সুস্পষ্টভাবে লিখা রয়েছে জনগণই দেশের মালিক। কিন্তু বর্তমানে সেই জনগণ আর এখন দেশের মালিক নেই। এই অধিকার আমাদের আদায় করে নিতে হবে। বুধবার (২৪ অক্টোবর) বিকেলে সিলেটের রেজিস্ট্রি মাঠে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ফ্রন্টের প্রধান নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, আপনারা আমাদের ৭টি দাবীর কথা ইতিমধ্যে জেনেছেন। আমাদের ১ নম্বর দাবি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন। এর সাথে আরো ৬টি দাবি রয়েছে। এসব দাবির কথা প্রতিটি থানায় ও উপজেলাসহ সর্বত্র ছড়িয়ে দিতে হবে। দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন করতে হবে। গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন আরো বলেছেন, ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। জনগণের মালিকানা প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।দেশে উন্নয়নের কথা বলা হয়।

কার উন্নয়ন এমন প্রশ্ন রেখে এসময় তিনি আরো বলেন, মানুষকে বঞ্চিত রেখে উন্নয়ন করা যায় না। দেশকে আমরা অগ্রগতির দিকে নিয়ে যাবো বলে যোগ করেন তিনি। সমাবেশের প্রধান বক্তার বক্তব্য দিতে গিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সিলেটবাসীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা অনেক ইতিহাসের জন্ম দিয়েছেন।

আজ এ সমাবেশের মাধ্যমে আরেকটি ইতিহাসের জন্ম দিয়েছেন আপনারা। এই ইতিহাস গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের ইতিহাস। নেতাকর্মীদের মুক্ত করতে হবে। তফসীল ঘোষণার পূর্বে পদত্যাগ করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। ইভিএমের মাধ্যমে ডিজিটাল চুরির সুযোগ দেয়া হবে না। আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করতে হবে। শান্তিপূর্ণ ভাবে আমরা অধিকার ফিরিয়ে আনবো।

দেশ ডাকাতের হাতে পরেছে উল্লেখ করে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে সমাবেশে জেএসডির সভাপতি আসম আব্দুর রব বলেন, শুধু নিজেরা মাঠে আমলে হবে না। জনগণকে মাঠে নিয়ে মাঠে নামতে হবে। এ লড়াই আমাদের বাঁচার লড়াই। এ লড়াইয়ে জিততেই হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য আমাদের মাঠে নামতে হয়েছে। সরকার জনগণের দ্বারা নির্বাচিত হয় নি। তাই খালেদা জিয়াকে অন্যায় ও মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। তারা জনগণকে ভয় পায় বলেই ইলিয়াস আলীসহ শতশত মানুষকে গুম করা হয়েছে। হত্যা করা হয়েছে অনেককে। তার জবাব তাদেরকে দিতেই হবে।

সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, সরকারকে সমযোঝাতায় আসতে হবে। নাহলে মানুষ তাদের সমুচিত জবাব দিবে। গত ১০ বছরে দেশে মেগা প্রকল্পের নামে দুর্নীতি হয়েছে। এ সরকারের শাসনামলে ৩৭ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে। আমরা ক্ষমতায় গেলে আর হিসেব নেবো।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রসঙ্গ টেনে বলেছেন, সরকার চোর-ডাকাতের মতো সারাদেশে ভোট ডাকাতি করেছে। সিলেটের মানুষ সাহসী ভূমিকা পালন করে তাদের ভোট ডাকাতি ঠেকাতে পেরেছে। গত নির্বাচনে নেতাকর্মীরা ঘরের মধ্যে ছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে আপনারা ঘরের ভিতর না থেকে বেরিয়ে আসবেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা এবং এ জোটের সিলেট সমাবেশের সমন্বয়ক ও ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ বলেছেন, বলেন, সিলেটের মানুষ কখনই মাথা নিচু করে হাটে নাই। সবসময় মাথা উঁচু করে হাটে। সিলেটের মানুষের টাকাসহ দেশের মানুষের কোটি কোটি টাকা দেশ থেকে বিদেশে পাচার হয়ে যাচ্ছে।তিনি বলেন, যেটি কারাগার নয় সেটিকে কারাগার বানিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে আটক রাখা হয়েছে। সরকার ও সরকার প্রধানকে খালেদা জিয়াকে মুক্তিসহ দেশে সকল প্রকার জুলুম অত্যাচার বন্ধ করে দ্রুত নির্বাচন দেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা আগামী ৪ নভেম্বর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান। একই সাথে ’৭৫-এর শহীদদের কবর জিয়ারত করে সংসদ ভবন এলাকায় জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করারও প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।তিনি বলেন, আমরা ১৫ আগস্ট চাই না, ২১ আগস্টের পুনরাবৃত্তি চাই না। আমরা জিয়াউর রহমানের মর্মান্তিক ঘটনারও পুনরাবৃত্তি চাই না। আমরা একটা শান্তির বাংলাদেশ চাই।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন, সহ সভাপতি সাবিনা রব, সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, ঐক্যফন্ট নেতা আকম মোস্তফা আমিন, জাতীয় পার্টির মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, নাগরিক ঐক্যের স্বমন্বয়কারী শহীদুল্লাহ কায়সার, জেএসডির সাংগঠনিক সম্পাদক বেলায়েত হোসেন,

এলডিপির মহাসচিব রেজওয়ান আহমেদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান, নেজামি ইসলামী পার্টির সভাপতি মওলানা আব্দুর রকিব, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় মহাসচিব ড. আহাম্মদ আব্দুল কাদের,বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদু, ভাইস চেয়ারম্যান পিনাম আহমদ চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের নেতা জিল্লুর রশীদ চৌধুরী, বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান, গণফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, আহম শফিকুল্লাহ,

খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা জয়নাল আবেদিন ফারুক, বিএনপি নেতা এডভোকেট ফজলুর রহমান, মহিলা দলের নেত্রী তানিয়া আক্তার, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা তাহসিনা রুশদীর লুনা, এম এ হক, ড. ইনামুল হক, খন্দকার মুক্তাদির, মিজানুর হমান মিন্টু, গণফোরামের কেন্দ্রীয় নেতা একেএম ফজলুল হায়দার, বিএনপির প্রচার বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক দিলদার হোসেন সেলিম, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি সভাপতি কলিম উদ্দিন মিলন, জমিয়ত নেতা শাহিনুর পাশা।

এর আগে দুপুর ১.৫৫ মিনিটে সিলেট নগরীর রেজিস্ট্রি মাঠে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও ঐক্যফ্রন্টের সিলেট কর্মসূচির সমন্বয়ক ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ পরিচালনায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দাবি আদায়ের আন্দোলনে যাওয়ার পূর্বে প্রথমবারের মতো সিলেট নগরীর রেজিস্ট্রি মাঠে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশটি শুরু হয়।

সকাল থেকেই ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে যোগ দিতে সিলেটের বিভিন্ন স্থান থেকে ছোট ছোট মিছিল সহকারে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা জড়ো হতে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ