প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দেশে কৃষি উপাদন ১ কোটি ৩৫ লাখ ৩৮ হাজার মেট্রিক টন বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী

তরিকুল ইসলাম সুমন : প্রধামমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে আওয়ামীলীগ সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। কৃষকদের নানা প্রনোদানা দেওয়ার কারণে খাদ্য শষ্য উৎপাদনে অনেক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। বর্তমানে ২০০৫-২০০৬ সালের ২ কোটি৭৭ লাখ ৮৭ হাজার মেট্রিক টন থেকে ১ কোটি ৩৫ লাখ ৩৮ হাজার মেট্রিকটন উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়ে ৪ কোটি ১৩ লাখ ২৫ হাজার মেট্রিক টনে উন্নিত হয়েছে। ফলে উৎপাদনশীলতার ধারাবাহিকতায় দেশ আজ স্বয়ংসম্পূর্ণ। বাংলাদেশ আজ বিশ্বে ধান উৎপাদনে ৪র্থ স্থান, আলু উৎপাদনে ৭ম, এবং সবজি উৎপাদনে ৩য় স্থান অর্জন করেছে।

বুধবার বেগম নূর-ই হাসনা লিলি চৌধুরীর এর প্রশ্নের উত্তরে এসব কথা জানান প্রধামমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, কৃষি যান্ত্রীকীকরণের জন্য প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষকদের ৫০-৭- শতাংশ উন্নয়ন সহায়তা দিঢেয় গ্রাসকৃুত মূশ্যে কৃষি সন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হচ্ছে।কৃষি গবেষনার উন্নয়ন, বাংলাদেশে গম ওভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হয়েছ।তোষাপাটের জীবন রহস্য উন্মোচন করা হয়েছ। এছাড়াও পাটসহ ৫ শতাধিক ফসলের ক্ষতিকরছত্রাকের জীবস রহস্য উরে¥াচন করা হয়েছ।নতুন নতুন ফসলের জাত উদ্ধাবন এবং এ জন্য প্রধম বারের মতো গবেষনার জন্য বাজেট বরাদ্দ করা হয়েছ।বিএডিসির মাধ্যমেবিভিন্ন পসলের জীজ উৎপাদনের এবং তা ন্যয্যমূল্যে সরবরাহ নিশ্চিত করা হয়েছে।২৪ ধরণের ফসল উৎপাদনের জন্য ৪ শতাংশ সুদের ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা, কুষি সহায়তা কার্ড সরবরাহ, ১০ টাকায় ব্যাকে হিসাব খোলার ব্যবস্থা, সেচ কাজে ২০ শতাংশ েিরবেটের সুবিধা, দক্ষিণাঞ্চলের কৃষকদের জন্য লবনাক্ততা সহিষ্ণ জাতের চাষ এবং সম্প্রমারণ করা হচ্ছে। ভাসমান বেড চাষাবাদের প্রযুক্তি হস্তান্তর, কেৃষি কল সেন্টার,এআইসিসি, সহ বিভিন্ন প্রযুক্তির সমাধ্যমে কৃষকদের সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো জানান, কৃষিবান্ধব নীতি গ্রহণ তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে আসামান্য সফলতা অর্জিত হয়েছে। কৃষি উন্নয়নের জন্য সুষ্ঠু সার ব্যবস্থাপনার জন্য প্রতিটি ইউনিয়নে একজন করে ডিলার ও ৯জন খুচরা সার বিক্রেতা নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সারের দাম ও চার দফায় কমিয়ে আনা হয়েছে।