প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘খেলোয়াড়দের পশ্চাৎদেশে কষে লাথি মারতে হবে’

স্পোর্টস ডেস্ক : তার সময়ে অস্ট্রেলিয়া ছিল ক্রিকেটবিশ্বের একচ্ছত্র অধিপতি। শেন ওয়ার্নের অবসরের পরও অস্ট্রেলিয়ার দাপট অক্ষত ছিল দীর্ঘদিন। কিন্তু ২০১৫ বিশ্বকাপ জেতার পর ক্রমেই নেতিয়ে পড়েছে দলটি। বিশেষ করে সাদা পোশাকে। পতনের ধারাবাহিকতায় টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের পাঁচ নম্বরে নেমে গেছে অস্ট্রেলিয়া। আবুধাবিতে সর্বশেষ টেস্টে পাকিস্তানের কাছে তারা হেরেছে ৩৭৩ রানের বিশাল ব্যবধানে।

উত্তরসূরিদের এমন দুর্গতি হজম করতে কষ্ট হচ্ছে শেন ওয়ার্নের। দলকে কক্ষপথে ফেরানোর ধনন্তরি একটি টোটকাও বাতলে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার স্পিন কিংবদন্তি। খেলোয়াড়দের পশ্চাদ্দেশে কষে লাথি মারতে হবে! পেইনদের চেতনা ফেরানোর বিকল্প কোনো পথ দেখছেন না ওয়ার্ন, ‘সর্বশেষ টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার পারফরম্যান্স ছিল একেবারে সাদামাটা। তাই নয় কী? আমরা সবাই সাধ্যমতো এই দলটিকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু এখন তাদের পশ্চাদ্দেশে লাথি মারার সময় এসেছে। কারণ কিছুতেই তারা পারফর্ম করতে পারছে না।’

অস্ট্রেলিয়ার তৃণমূল ক্রিকেটের ভিত দুর্বল হয়ে যাওয়ায় জাতীয় দলে তার প্রভাব পড়েছে বলে অভিমত ওয়ার্নের। বোর্ডের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। বল টেম্পারিং-কা-ে স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হওয়ার পর নেতৃত্বের সংকট কাটাতে মিচেল মাশর্কে টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক করার সিদ্ধান্তটা ওয়ার্নের কাছে বিস্ময় হয়ে এসেছে, ‘দলে যে জায়গাই নিশ্চিত করতে পারেনি, তাকে সহ-অধিনায়ক করাটা আমার কাছে অদ্ভুত ঠেকেছে। টেস্টে তার গড় মাত্র ২৫ বা ২৬। আগে কিছু রান করতে হবে মিচেল মার্শকে।’

টিম পেইনের নেতৃত্বও মনে ধরছে না ওয়ার্নের। তার মতে, টি ২০ অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চের হাতেই সব ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব তুলে দেয়া উচিত। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজেই টেস্ট অভিষেক হওয়া ফিঞ্চের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ দেখছেন ওয়ার্ন, ‘আমার মতে, ফিঞ্চকেই সব ফরম্যাটে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক করা উচিত। আমি তার অধিনায়কত্ব পছন্দ করি। ওয়ানডে ও টি ২০ ফরম্যাটে তার সামর্থ্য নিয়ে কোনো সংশয় নেই। যদি সে টেস্ট ক্রিকেটে নিজেকে মেলে ধরতে পারে, তাহলে লাল বলের ক্রিকেটে অনেক দূর যাওয়ার সম্ভাবনা আছে তার। – এএফপি/ ক্রিকইনফো

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত