Skip to main content

মামলা হচ্ছে ৩ পুলিশের বিরুদ্ধে

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর রামপুরা টিভি সেন্টার এলাকায় তল্লাশির নামে পুলিশ কর্তৃক এক তরুণীকে হেনস্তা ও এর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দিবাগত রাতে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যকে শনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) আছাদুজ্জামান মিয়ার অনুমোদন পেলে বুধবার তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হবে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি পুলিশের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা। এছাড়াও সেই তিন কর্মকর্তাকে মাঠ থেকে তুলে ‘আপাতত’ দাফতরিক কাজ করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। এর আগে সোমবার রাতে পুলিশের তল্লাশি চৌকিতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার এক নারী যাত্রীকে হেনস্তা করেন কয়েকজন পুলিশ সদস্য। তরুণীর সঙ্গে পুলিশের বাকবিতণ্ডার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। এরপর থেকেই পুলিশের প্রশ্ন ও কর্মকাণ্ড নিয়ে শুরু হয় সমালোচনা। এ বিষয়ে দিনভর কোনো কথা না বললেও বুধবার সন্ধ্যা ৭টা ৪৬ মিনিটে ডিএমপির ভেরিফাইড ফেসবুক পেজের মাধ্যমে জানানো হয়, ‘পুলিশ চেকপোস্টে সিএনজি আরোহী এক নারীর সঙ্গে পুলিশের বাদানুবাদের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বিষয়টি সম্পর্কে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের দৃষ্টি আকর্ষিত হয়েছে। ইতোমধ্যে ঘটনায় সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যদের শনাক্ত করা হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থাগ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।’ ডিএমপির একটি সূত্র দিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে যে, এ ঘটনায় ঢাকা মহানগর পুলিশ সদর দফতরের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ভিডিওটি যাচাই-বাছাই করে এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যকে শনাক্ত করা হয়েছে। ডিএমপি কমিশনারের অনুমতিক্রমে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম এক ফেসবুক পোস্টে জানান, ‘ভিডিও ধারণকারী পুলিশ সদস্যদের শনাক্ত করা গেছে। সম্মানিত কমিশনার মহোদয়ের অনুমতিক্রমে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। আশা করি এবং অবশ্যই আপনারাও আশা করবেন যে, মামলার মাধ্যমেই সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হচ্ছে। আপনারা জানবেন যে, প্রত্যেকটা প্রোসেডিংয়ের নিয়মকানুন আছে, সেসব আমলে নিয়েই এগুতে হচ্ছে বলে সময় একটু লাগছে কিন্তু শাস্তি নিশ্চিত।’ একুশে টিভি