প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শিবচরে বিকাশ কর্মীকে কুপিয়ে ছিনতাইয়ের ঘটনায় মামলা, কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ

রিপনচন্দ্র মল্লিক, মধ্যাঞ্চল প্রতিনিধি: মাদারীপুরের শিবচরে মোবাইলে অর্থ লেনদেনের এজেন্সি বিকাশের ইসুফ বেপারী (২৫) নামের এক সেলস অফিসারকে বেধরক ভাবে পিটিয়ে সাড়ে ৬ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশ গড়িমসি করে থানায় মামলা নিলেও এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এই ঘটনায় গুরুতর আহত ইউসুফ বেপারী প্রায় এক সপ্তাহ ধরে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

বিকাশের মাদারীপুর জেলা ডিস্ট্রিবিউটর মোস্তাক আহমেদ জানিয়েছেন, গত ১৭ অক্টোবর সকালে আমার সেলস অফিসার ইউসুফ বেপারী শিবচর বাজারের ইউনাইডেট কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের শাখা থেকে ৭ লাখ টাকা তুলে তার সাথে থাকা অপর আরেকজন সেলস অফিসার জাহিদ হাওলাদারকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে বাকী ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে সে তার এজেন্টদের টাকা দেওয়ার জন্য মটরসাইকেল যোগে শিবচর বাজার থেকে পাচ্চর যাওয়ার পথে উপ-শহর হাউজিং প্রকল্পে এলাকার ইকবাল ক্লাবের কাছে ইউসুফের মটরসাইকেলে গতিরোধ করে আসামী সোহাগ হাওলাদার, সোহেল হাওলাদারসহ চারজন ব্যক্তি ইউসুফকে পথে একা পেয়ে বেধড়ক ভাবে পিটিয়ে সাথে থাকা ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও সাথে থাকা মোবাইলসেট নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ইউসুফকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

মোস্তাক আহমেদ আরো জানিয়েছেন, এই ঘটনায় শিবচর থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে পুলিশ আমাদের ছিনতাই মামলা নিতে গড়িমসি করে। পরে জেলার শীর্ষ ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের অনুরোধে ঘটনার পাঁচদিন পর পুলিশ ছিনতাই মামলা দায়ের করলেও এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

মাদারীপুর চেম্বার অব কমার্সের সহ-সভাপতি মনিরুল ইসলাম মুন বলেন,‘আমার ব্যবসায়ী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, অথচ শিবচর থানা পুলিশ বিষয়টি নিয়ে প্রচুর উদাসীনতা দেখিয়েছে। অনেক দেন দরবার শেষে যদিও মামলা নিয়েছে, এখন আমরা চাই, যারা অপরাধী তদন্ত করে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসুক।

এবিষয়ে শিবচর থানার ওসি জাকির হোসেন জানিয়েছেন, বিকাশের টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি। প্রকৃত অপরাধীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসবো।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ