প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উপমহাদেশের বৃহত্তম সূর্যপুরী আমগাছ ঠাকুরগাঁওয়ে

মো.সাদ্দাম হোসেন,ঠাকুরগাঁও : ঠাকুরগাঁও বালিয়াড্ঙ্গাী উপজেলার হরিণমারী মন্ডুমুলা গ্রামে রয়েছে উপমহাদেশের সবচেয়ে বড় আমগাছ। কৃষি গবেষকদের মতে, এই আমগাছটি হচ্ছে এশিয়ার সর্ববৃহত্তম সুর্যপুরী আমগাছ।

জানা গেছে, প্রায় ২০০ বছরের অসংখ্য ইতিহাসের নীরব সাক্ষী হয়ে প্রায় ৩ বিঘা জমি জুড়ে রয়েছে এই আমগাছ। ২০হাত বেড় ও ৫০/৬০হাত উচ্চতা বিশিষ্ট এই প্রাচীন গাছটির চারপাশে ছড়িয়ে আছে ১৯টি বড় বড় ডাল। প্রতিটি ডালের দৈঘ্য ৪০/৫০হাত। এই অবিস্মরণীয় গাছটি দেখতে প্রতিদিন শত শত মানুষ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসছেন।

ওই গ্রামের ৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধা ইসহাক আলী বলেন,আমার বাপ-দাদারা সবাই এই আমগাছটি দেখছেন। আমাদের বয়সও শেষ হয়ে যাচ্ছে তারপরেও এই গাছটি আমাদের অভিভাবকের মত দাড়িঁয়ে রয়েছে যুগ যুগ ধরে। পৈত্রিক সূত্রে এই গাছটির মালিক দুই ভাই সাইদুর ইসলাম ও নুর ইসলাম। তারা জানান,আমগাছটি দেখতে প্রতিদিন ভীড় করছে শতশত মানুষ। তাই গাছটির চার পাশে টিনদিয়ে ঘেরাও করে রেখেছি।

গাছটি রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচর্যার জন্য কাজ করে সাতজন শ্রমিক। তাদের মজুরী ও নিজেদের আয়ের পথ হিসেবে দর্শানার্থীদের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে টিকেট প্রতি ১০টাকা। আমের মৌসুমে এই গাছটি থেকে ৪০-৫০হাজার টাকার সূর্যপুরী আম বিক্রয় হয়।

এই বিষয়ে ঠাকুরগাঁও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কেএম মাউদুদুল ইসলাম বলেন, সূর্যপুরী এই আমগাছটি আরো নিবিড়ভাবে পরিচর্যা ও রক্ষণাবেক্ষনের জন্য আমরা নিয়মিত খোঁজ খবর নিচ্ছি। এই গাছ গবেষনার জন্য ইতিমধ্যে কৃষিগবেষণা কেন্দ্রে থেকে গবেষকরা পর্যবেক্ষণ করে গেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ