প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কলড্রপের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সুপারিশ

রাইজিংবিডি : মোবাইল ফোনে সময়-অসময়ে অনাকাঙ্ক্ষিত ম্যাসেজ আসায় বিরক্তি প্রকাশ করে তা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছে জাতীয় সংসদের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি।

মোবাইল অপারেটরগুলোকে ম্যাসেজ সংখ্যা কমানোর জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণেরও আহ্বান জানিয়েছে কমিটি।

এছাড়া, কলড্রপের জন্য গ্রাহকদের হয়রানি, সমস্যা এবং সময় ও আর্থিক ক্ষতির বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে কমিটি। এ সময় কলড্রপের জন্য মোবাইল অপারেটরগুলো কেন গ্রাহকদের ক্ষতিপূরণ দেবে না, সে বিষয়ে বিটিআরসিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে কমিটি।

মঙ্গলবার দশম জাতীয় সংসদের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ২৮তম বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

সংসদ ভবনে কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদের সভাপতিত্বে এ বৈঠক হয়। কমিটির সদস্য জুনাইদ আহমেদ পলক, মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, শওকত হাচানুর রহমান (রিমন), শেখ আফিল উদ্দিন এবং হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া বৈঠকে অংশ নেন। বিশেষ আমন্ত্রণে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বৈঠকে যোগ দেন।

বৈঠকে দেশে ১৫ কোটি মোবাইল সিম উন্মুক্ত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে কমিটির তরফ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়। ডব্লিউবিএন (ওয়ার্ল্ড ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক) প্রকল্প বর্তমান সরকারের মেয়াদের মধ্যে ত্বরিত গতিতে সম্পন্ন করার জন্য মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

কমিটি প্রত্যেক মোবাইল অপারেটর প্রতিবছর তাদের নিজস্ব অডিটর দ্বারা আর্থিক ও টেকনিক্যাল অডিট সম্পন্ন করে তাদের প্রতিবেদন বিটিআরসি এবং ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির কাছে দেওয়ার সুপারিশ করে।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, বিটিসিএল, টেলিটক, বিকেশি, টেশিস, বিএসসিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ