প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রংপুরের মামলায় মইনুল হোসেনের জামিন নামঞ্জুর

এস এম নুর মোহাম্মদ ও সাব্বির আহমেদ: সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে কটূক্তির ঘটনায় সোমবার রংপুরে দায়ের করা মানহানির মামলায় গ্রেফতার সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেননের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরের ১টার দিকে ডিবি কার্যালয়ে থেকে তাকে আদালতে তোলা হয়। ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম এই আদেশ দেন।

এর আগে ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আগে আইনি লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়েছেন ড.কামাল হোসেন। আজ ডিবি কার্যালয়ের সামনে থেকে ফিরে গেছেন মইনুল হোসেনের আইনজীবী মাহবুব হোসেন। তিনি ভেতর ঢুকার অনুমতি পাননি। এসময় তিনি বলেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে রংপুরে দায়েরকৃত মামলাটি সম্পূর্ণ বেআইনি।

মইনুলের পিএস রাজু জানিয়েছেন, পরিবারের সদস্যরাও দেখা করতে পারেননি। তার দরকারী জিনিসপত্র দিয়ে গেছেন।

প্রসঙ্গত, টকশোতে কটূক্তির অভিযোগে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি। গত রোববার দুপুরে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মো. আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে তিনি এ মামলা করেন।

এর আগে জামালপুরে যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক ফারজানা ইয়াসমিন লিটার মানহানির মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সোলায়মান কবির।

গত ১৬ অক্টোবর মধ্যরাতে একাত্তর টেলিভিশনের টকশোতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে উদ্দেশ করে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের এক মন্তব্যের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে।

এ ঘটনায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়ে গত শনিবার বিবৃতি দেন বিভিন্ন গণমাধ্যমের ৫৫ সম্পাদক ও বেশ কয়েকজন সিনিয়র সাংবাদিক।

এর আগে ১৮ অক্টোবর ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেওয়ার হুশিয়ারি দিয়ে নারী সাংবাদিকরা সংবাদ সম্মেলন করেন। এছাড়া সোমবার ভোলা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও রংপুরে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করে নারী সাংবাদিক ও নারী নেত্রীরা। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ