প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গত ২৪ জুলাই আদালতের নির্দেশ
৩ মাস পেরিয়ে গেলেও স্বাস্থ্য পরীক্ষার মূল্য তালিকা টানানো হয়নি

অনলাইন ডেস্ক: আদালতের নির্দেশের তিন মাস পেরিয়ে গেলেও স্বাস্থ্য পরীক্ষার মূল্য তালিকা টানানো হয়নি বেশিরভাগ হাসপাতালে। অথচ ১৫ দিনের মধ্যে তা বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। গত ২৪ জুলাই দেশের সব বেসরকারি ক্লিনিক, হাসপাতাল, ল্যাবরেটরি ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে স্বাস্থ্য পরীক্ষার মূল্য তালিকা টানাতে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

রাজধানীর মহাখালী আইসিডিডিআর,বি ল্যাবের গেটে বোর্ডে সব টেস্টের নাম লিখে তালিকা টানানো রয়েছে। ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতাল ও ল্যাব এইড হাসপাতালেও তালিকা টানানো আছে। তবে ঢাকা শিশু হাসপাতাল, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (ঢামেক), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) ও বারডেম হাসপাতালে মূল্য তালিকা পাওয়া যায়নি। এই বিষয়ে জানতে ঢামেক ও বিএসএমএমইউ এর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে কাউকে পাওয়া যায়নি।

ঢাকা শিশু হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আবু তৈয়ব বলেন, “আমাদের হাসপাতালে ঠিক কোন কোন টেস্টগুলো করা হয়, তার একটা তালিকা আমরা টানিয়ে রেখেছি। কিন্তু এরজন্য কত টাকা দিতে হয়, তা লেখা নেই। তবে, যদি মূল্য তালিকা টানাতে হয়, তাহলে আমরা এক সপ্তাহের মধ্যেই এর ব্যবস্থা করবো।”

সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ব্রায়ান বঙ্কিম হালদার বলেন, “আমাদের এখানে তালিকা আগে থেকেই টানানো রয়েছে। আমি তো গত তিন বছর ধরে এই হাসপাতালে আছি। যেখানে টাকা জমা নেওয়া হয়, সেই ক্যাশ কাউন্টারের সামনে তালিকা টানানো আছে।”

বারডেম হাসপাতালের পরিচালক শহিদুল হক মল্লিক বলেন, “আমাদের এখানে প্রায় ৩’শ থেকে ৪’শ টেস্ট করা হয়। এগুলোর সবগুলোর তো আর তালিকা টানানো সম্ভব নয়। আমরা ওখানে যাচাই-বাছাই করে যেগুলো কমন, সেগুলো অলরেডি বোর্ডে দিয়েছি। শিগগিরই ডিসপ্লে করে দেবো।”

সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, “ক্যাশ কাউন্টারের সামনে তালিকা টানানো রয়েছ।”

বাংলাদেশ হেলথ রাইটস মুভমেন্ট এর প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. রশীদ-ই-মাহবুব বলেন, “স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে নির্দিষ্ট দাম নির্ধারণ না করা পর্যন্ত একেক জায়গায় একেক প্যাথলজি টেস্টের দাম নিচ্ছে। তাই তালিকা টানালেই সেটা খুব একটা জনগণের উপকারে আসবে না। সরকার এটা নির্দিষ্ট করে দিলে তখন তা জনগণের কাজে আসবে। যতক্ষণ এই তালিকা তৈরি না হচ্ছে জনগণের উপকার হচ্ছে না।” তিনি আরও বলেন, “সকল প্যাথলজি টেস্টের দাম নির্ধারণ করে দিয়ে এবং একটি স্বাধীন কমিটি দিয়ে এই বিষয়টি তদারকি করলেই তবে এর সুফল পাবে জনগণ।” (বাংলা ট্রিবিউন)

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত