প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সব ব্যাংকের প্রধান ১০ ঋণ লোপাটকারীর তথ্য চেয়েছেন অর্থমন্ত্রী

বিশ্বজিৎ দত্ত : বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে সকল সরকারি, বেসরকারি ও বিদেশি ব্যাংকের প্রধান ১০ জন ঋণ লোপাটকারীর তালিকা চেয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। এই তালিকায় এমন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে রাখা হয়েছে, যারা ১ হাজার কোটি টাকার উপরে ঋণ নিয়ে আর ফেরত দেননি।

এই তালিকা দিয়ে অর্থমন্ত্রী কী সিদ্ধান্ত নেবেন, এ বিষয়ে এখনো কোন কিছু জানেন না অর্থমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘আমরা তালিকাটি বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে পেয়েছি। আগামী সপ্তাহে তা অর্থমন্ত্রীর কাছে জমা দেয়া হবে।’ দেশে মোট ৫৮টি ব্যাংক রয়েছে।

সূত্র জানায়, ব্যাংকগুলোর ১ হাজার কোটি টাকার উপরে ঋণ লোপাটকারী রয়েছে ৫৮০ জন। যদি তারা প্রত্যেকে গড়ে ১ হাজার কোটি টাকা করে ঋণ লোপাট করেন, তাহলে ৫ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা লোপাট হয়েছে। যা দেশের এক বছরের বাজেটের চেয়েও বেশি। ২০১৮-১৯ সালে বাজেটের পরিমাণ প্রায় ৪ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকা।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, এই বিপুল পরিমাণ অর্থের বেশিরভাগটাই লোপাট হয়েছে বা খেলাপি হয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব¡ বিভিন্ন ব্যাংক থেকে। বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি লোপাট হয়েছে ইসলামী ব্যাংক থেকে। আর বিদেশি ব্যাংকগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থ লোপাট হয়েছে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া থেকে। এরপরে রয়েছে আল ফালাহ ব্যাংক।

অর্থমন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, তালিকায় থাকা অনেক ঋণ লোপাটকারী বর্তমানে জেলে রয়েছেন। আবার অনেকে বিদেশে পালিয়ে গেছেন।

অনেক খেলাপি কিছু ঋণ শোধ করেছেন। অনেকে আছেন, যাদের কোন অস্তিত্বই নেই। আর এসব নিয়ে সম্পূর্ণ কোন রিপোর্ট কোথাও নেই। দুদকে কিছু মামলা তদারকি করছে। তাদের তদারকি শুধুমাত্র এই খেলাপিদের অর্থ পাচার বিষয়ে। অর্থ আদায় ও তাদের সম্পত্তি নিলাম করার দায়িত্ব ব্যাংকের। তিনি মনে করেন, এই বিষয়গুলি নিয়েই অর্থমন্ত্রী সরকারকে একটি দিক নির্দেশনা দিতে পারেন। সম্পাদনা : মাহবুব আলম, সালেহ বিপ্লব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ