Skip to main content

খালেদা জিয়ার চিকিৎসার উন্নতি, অবনতির নিয়ে কিছুই জানে না বিএনপি

শাহানুজ্জামান টিটু : গত ৬ অক্টোবর খালেদা জিয়াকে বিএমএমসিইউতে ভর্তির পর থেকে তার অবস্থার উন্নতি, অবনতির বিষয়ে কিছুই জানতে পারছে না বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেছেন, তার দলের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যর্থাথ চিকিৎসা পাচ্ছেন না। তিনি বলেন কারাগার থেকে যে কারণে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে এখানেও তার সঙ্গে একই ধরণের আচারণ করা হচ্ছে। আদালতের নির্দেশ থাকা সত্বেও তার পছন্দের ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের নেওয়া হয়নি। তার চিকিৎসা নিয়ে অন্ধকারে রয়েছি আমরা। বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে ড্যাব মহাসচিব ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দরকার, যথাযথ চিকিৎসার প্রয়োজন। উনাকে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। উনার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের মেডিকেল বোর্ডে অর্ন্তভুক্ত করতে আদালত নির্দেশ দিয়েছেন। গত ৬ অক্টোবর বিএমএমসিইউতে ভর্তির পর থেকে আমরা কি দেখলাম? আদালতের সেই নির্দেশ মানা হয়নি। আদালতের নির্দেশনা মেনে যদি বোর্ড করা হতো তাহলে আজকে তার চিকিৎসা নিয়ে প্রশ্ন উঠতো না। উনারা (মেডিকেল বোর্ড) কি করছেন, চিকিৎসা কতদূর করছেন বা দিচ্ছেন না, এব্যাপারে তার ব্যাক্তিগত চিকিৎসরা থাকলে তারা এটা বুঝতে পারতেন। তখন ম্যাডামের চিকিৎসার ব্যাপারে আস্থার জায়গাটা অনেক বাড়তো। খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কিছু জানাচ্ছে না এবিষয়ে ডা. জাহিদ হোসেন বলেন, তারা কেনই বা শুরু করেছিলেন আর কেনই বা তারা বন্ধ করেছেন তা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভালো বলতে পারবেন। কিন্তু দেশবাসীতো উৎকন্ঠার মধ্যে আছে। মানুষ চিকিৎসার খবর জানতে চায়। মিডিয়াতে সব কথা না বললেও তারা অবস্থার উন্নতি অবনতি, স্থিতিশীল এই দুই তিন কথা তো বলা যায়। সেটা তো উনারা করতে পারতেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ম্যাডামের আত্মীয় স্বজনদেরও তার কাছে যেতে দেওয়া হয় না। জেলখানায় যেভাবে তাদেরকে দেখা করতে দেওয়া হতো এখনও সেই লেবেলে রয়েছে। হাসপাতালে ভর্তির পর রোগীর পাশে তার আত্মীয় স্বজনদের রাখা উচিত কিন্তু তা হচ্ছে না। জেলখানার পাশাপাশি তাকে রোগীর যে সুযোগ সুবিধা পাওয়া উচিত তা তাকে দেওয়া হচ্ছে না।

অন্যান্য সংবাদ