প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খাসোগি হত্যায় প্রকাশ্যে এলো নতুন তথ্য

প্রিয় সংবাদ : সৌদি রাজতন্ত্রের সমালোচক জামাল খাসোগির হত্যার বিষয়ে সামনে এলো নতুন তথ্য। সৌদি আরব এবার বলছে, গোয়েন্দা সদস্যরা শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করেছে। মৃত্যু নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো অবস্থান পরিবর্তন করল দেশটি। পার্স টুডের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে সৌদি সাংবাদিক খাসোগি নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার পর টানা দুই সপ্তাহ সৌদি সরকার দাবি করে আসছিল, কনস্যুলেট থেকে খাসোগি জীবিত অবস্থায় বেরিয়ে গেছেন। এরপর ২০ অক্টোবর সকালে সৌদির জেনারেল প্রসিকিউটর নিশ্চিত করেন সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যা করা হয়েছে। দেশটির রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত টেলিভিশন ‘প্রাথমিক তদন্তের’ বরাত দিয়ে জানিয়েছে, তুরস্কের সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে ‘এক সংঘর্ষে’ খাসোগি নিহত হয়েছেন।

সৌদি সরকারের ওই বক্তব্য নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে সন্দেহ সৃষ্টির পর এবার সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জুবায়ের ২১ অক্টোবর, রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের টেলিভিশন চ্যানেল ফক্স নিউজকে দেওয়া বিশেষ এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, খাসোগিকে নিরাপত্তা কর্মকর্তারা খুন করেছেন।

এদিকে খাসোগির হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে সব ‘সত্য’ প্রকাশ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তুরস্ক। ফুঁসছে যুক্তরাষ্ট্রেরও একাংশ। তুরস্কের দাবি, খাসোগিকে জীবিত অবস্থায় টুকরো টুকরো করা হয়। তাকে হত্যা করতে মাত্র সাত মিনিট সময় নেওয়া হয়েছে।

আদেল আল-জুবায়ের প্রথম স্বীকার করলেন, খাসোগির নিহত হওয়ার বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে ঘটে যাওয়া কোনো ঘটনা ছিল না বরং পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তাকে খুন করা হয়েছে। কিন্তু সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দাবি, ‘সৌদি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অগোচরেই’ এ কাজ সম্পাদন করা হয়েছে।

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘একটি ভয়ঙ্কর ভুল ছিল এটি। বিষয়টি চেপে রাখার চেষ্টা আরও সেই ভুলটিকে জটিল করে তুলছে।’

যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের নির্দেশে এ কাজ করা হয়নি বলেও সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোর দাবি করেন।

এদিকে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকায় খাসোগি বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সৌদির এক কর্মকর্তার ভাষ্য তুলে ধরা হয়েছে। ওই কর্মকর্তা জানান, ১৫ জন ব্যক্তি গিয়েছিলেন খাসোগির মুখোমুখি হতে। খাসোগিকে হত্যা করতেই নাকি সেখানে পাঠানো হয়েছিল তাদের।

তিনি বলেন, ‘ওই দলে সেনা সদস্যও ছিলেন। এরপরই খাসোগিকে অপহরণ করা হয়। বাধা দিতে গেলে তাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হবে, এমনটাও বলা হয়েছিল। তা সত্ত্বেও খাসোগি বাধা দেন। এরপরই তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ