প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চুর রূপালি গিটারের মোহ রয়ে গেছে ভক্তদের হৃদয়ে

সাজিয়া আক্তার : কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চু চলে গেলেন বহু দূরে। কিন্তু তার রূপালি গিটারের মোহ রয়ে গেছে ভক্তদের হৃদয়ে। আইয়ুব বাচ্চু চেয়েছিলেন শুধু গিটার নিয়েই জীবন কাটাতে। নিজেকে তাই গিটারিস্ট হিসেবেই পরিচয় দিতে পছন্দ করতেন। সুত্র : ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন

প্রথাগত কোন শিক্ষা ছিল না তার, কিন্তু ছিল সঙ্গীতের প্রতি অসীম ভালোবাসা আর অধ্যবসায়। বাবা ছিলের সঙ্গীত বিরোধী, কিন্তু ছিল মায়ের উৎসাহ। খালা গয়না বিক্রি করে কিনে দিয়েছিলেন গিটার। সে গিটার হাতে ক্লাস সেভেন পড়–য়া বাচ্চুর শুরু হয় দীর্ঘ পথচলা। তরুণ বয়সে বিভিন্ন ব্যান্ড বাজিয়ে ১৯৭৮ সালে চলে আসেন সোলসে। ব্যান্ডের নিয়মিত চর্চা শেষ কিন্তু আইয়ুব বাচ্চু গিটার বাজিয়ে যেতেন ঘন্টার পর ঘন্টা। মাত্র ৬০০ টাকা নিয়ে ঢাকা এসেছিলেন ধ্যানে জ্ঞানে মিউজিশিয়ান হওয়ার তীব্র ইচ্ছা।

এক রেকর্ডিং স্টুডিও থেকে অন্য স্টুডিওতে ঘুরেছেন, প্রতিদিনেই গিটার বাজিয়েছেন অবিরাম। সোলস ছেড়ে এলআরবি গড়েছিলেন রক সঙ্গীতের প্রতি ভালোবাসা থেকে। বাংলাদেশের ইতিহাসের প্রথম ডাবল অ্যালবাম এলআরবির রক অ্যালবামটি আলোড়ন তুলেছিল সর্বত্র।

বাংলাদেশের প্রথম ব্যান্ড হিসেবে ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনে পারর্ফম করেছিল এলআরবি। আইয়ুব বাচ্চু এবং এলআরবির জনপ্রিয়তা ছড়িয়ে পড়েছিল ভারতেও। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে অনন্য এক পারফরম্যান্সে আইয়ুব বাচ্চুকে এনে বসানো হয়েছিল বিচারকের আসনে।

দেশের রক সঙ্গীতের কান্ডারি হলেও তিনি নিরীক্ষণ করেছেন ক্লাসিকাল, ফোক এবং লোক সঙ্গীত নিয়ে। সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন অসংখ্য শিল্পীর অ্যালবামে। তরুণ প্রজন্মের উপর আইয়ুব বাচ্চুর ছিল অগাধ আস্থা। তার গিটার বাদনে অনুপ্রাণিত হয়েছেন বর্তমান অনেক শিল্পী।

জন্মস্থান চট্টগ্রামে মিউজিশিয়ানদের জন্য গড়েছিলেন এবি লাইঞ্জ। আইয়ুব বাচ্চুর সবচেয়ে বড় অবদান হলো, তার গানগুলো পৌঁছে গেছে দেশের প্রতিটি প্রান্তে। তার গানে মেতেছিল পুরো চার দশকের প্রজন্ম। আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন কিছুটা আবেগপ্রবণ ও অভিমানী। দেশব্যাপী গিটার প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে চেয়েছিলেন। স্পন্সর না পেয়ে নিলামে তুলেছিলেন তার প্রিয় পাঁচটি গিটার। ইচ্ছে ছিল তরুণ মিউজিশিয়ানদের নিয়ে একটি রক হান্ট করার, কিন্তু অসময়ে চলে গিয়ে তিনি রেখে গেছেন অপূরণীয় শূন্যতা।

কিংবদন্তির মৃত্যুতে শোকাহত আরেক কিংবদন্তি জেমস অশ্রুসিক্ত হয়েছেন আইয়ুব বাচ্চুকে স্মরণ করে।

জেমস বলেন, আমি আর বাচ্চু ভাই একসাথে আড্ডা মারতাম। আমদের এই শিল্পীদের একটা প্রবাদ আছে ইংরেজিতে ঞযব ংযড়ি সঁংঃ মড় ড়হ.

শিল্পী, গায়ক, পারফর্মার সবকিছু ছাপিয়ে আইয়ুব বাচ্চু হয়ে উঠেছেন একজন কিংবদন্তি মানুষ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ