প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশের জাতীয় ফল কাঁঠালের জনপ্রিয়তা বাড়ছে যুক্তরাজ্যে !

আসিফুজ্জামান পৃথিল : যুক্তরাজ্যে দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বাংলাদেশের জাতীয় ফল কাঁঠাল! তবে পাকা কাঁঠাল নয় দেশটিতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে কাঁচা কাঁঠাল। প্রধানত নিরামিষভোজীরা মেতে উঠেছেন কাঁচা কাঁঠালে। তাদের মতে এই কাঁঠাল খেতে শুকর কিংবা গরুর মাংসের মতো!

বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে কাঁচা কাঁঠাল বহু আগে থেকেই গাঠপাঁঠা নামে জনপ্রিয়। এখন যা জনপ্রিয়তা পেয়েছে ব্রিটিশ ভোজন রশিকদের কাছে। বিশেষত যারা মাংস খান না, তারা দেদারসে কাঁচা কাঠাল খাচ্ছেন। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বড় রকমের ঝুঁকিতে রয়েছে গম এবং ভুট্টার মতো শস্য। গবেষকরা বলছেন এ দুই শষ্যের স্থান দখলের সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় ফলটির! যুক্তরাজ্যের বার্মিংহামের এক জোড়া তরুণ তরুনি কাঁঠালের পক্ষে প্রচারণায় নেমেছেন। তারা শুকরের মাংসের বিকল্প হিসেবে দাঁড় করাতে চান কাঁঠালকে! কারণ কাঁঠালে কোন ক্ষতিকর চর্বি নেই এবং এর উৎপাদনে পরিবেশের কোন ক্ষতিও হয় না।

‘প্রোজেক্ট জ্যাকফ্রুট’ নামের এ প্রচারণা শুরু করেছেন ২৩ বছর বয়সি দুই বন্ধু জর্ডান গ্রেসন এবং অ্যাবে রর্বার্টসন। তারা নিজেদের খাবারে বহুদিন ধরে মাংসের বিকল্প খুঁজছিলেন। তারা ভারত এবং বাংলাদেশ থেকে সংগ্রহ করে কাঁঠালের প্রক্রিয়াজাত অংশ বিক্রি করছেন। এরমধ্যে রয়েছে বার্বিকিউ কাঁঠাল, নোনা কাঁঠাল এবং ক্যারাবিয়ান জার্ক!’ বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে এ ফল তুমুল জনপ্রিয় হলেও যুক্তরাজ্যে জনপ্রিয়তা পেতে কাঁঠালের সময় লাগবে বলে মনে করেন গ্রেসন। তবে তিনি মনে করেন দেশটি এবং বিশ্বজুড়ে একদিন কাঁঠালই হয়ে উঠবে মাংসের বিকল্প। মানুষ আর চর্বিযুক্ত মাংস খাবে না। খাবে পুষ্টিকর কাঁঠাল।

ভিয়েতনাম, ভারত, শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশে প্রচ- জনপ্রিয় ফল কাঁঠাল। ফলটি একই সাথে বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কার জাতীয় ফল। গবেষকরা বলছেন মোট উৎপাদিত কাঁঠালের ৭৫ শতাংশই নষ্ট হয়ে যায়! জর্ডান এবং অ্যাবে ৩০০ গ্রামের কাঁঠাল মিক্স বিক্রি করছেন ৫ পাউন্ডে। এ দুজন বাংলাদেশ এবং ভারতে কাঁঠাল মিক্স এর কারখানা স্থাপনে আগ্রহী। সম্পাদনা : মোহাম্মদ রকিব হোসেন

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ