Skip to main content

বিএনপির মতো সন্ত্রাসী দলের সঙ্গে কোনো সংলাপ হবে না : হানিফ

সমীরণ রায়: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপির মতো সন্ত্রাসী দলের সঙ্গে কোনো সংলাপ হবে না, হতে পারে না। সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এ্যাভিনিউয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগের ৪৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যথাসময়ে সংবিধান অনুযায়ী হবে। এই নির্বাচন নিয়ে নতুন করে কোনো আলোচনার প্রয়োজন নেই। সম্প্রতি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে প্রমাণিত হয়েছে, বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। তারা আদালতের মাধ্যমে সীকৃত সন্ত্রাসী দল। তাদের সঙ্গে আলোচনা বা সংলাপের কোনো সুযোগ নেই। তবে নির্বাচন বানচালের কোনো অপতৎপরতা হলে, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তা প্রতিহত করা হবে। মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও ৫ জানুয়ারির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপি যে তান্ডব চালিয়েছিল, এতে তারা কোন অধিকারে রাজনীতির কথা বলে। তারা আদর্শহীন বা নীতিহীন দল। মানুষ হত্যা করা কোনো রাজনৈতিক দলের নীতি হতে পারে না। তাদের দেশে কোনো রাজনীতি করার অধিকার থাকতে পারে না। একই সঙ্গে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার দায় খালেদা জিয়া এড়াতে পারেন না। এ জন্য পূন:তদন্তের মাধ্যমে খালেদা জিয়ারও বিচার দাবি করেন হানিফ। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ড. কামাল হোসেনের রাজনৈতিক জীবনে মুনাফেকী ও বেঈমানী ছাড়া আর কিছু নেই। ধিক্কার জানাই ড. কামাল হোসেনকে। বিএনপি সন্ত্রাসী ও দুর্নীতিবাজদের দল। এই দলটি দুর্নীতিবাজ ও সন্ত্রাসীদের প্লাটফরম। তাদের সঙ্গে জোট করেছেন ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেছেন, তারেক রহমানের সঙ্গে নাকি তাঁর কোনো সম্পর্ক নেই। অথচ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তারেক রহমান। এদেশের জনগণ এতো বোকা নয়, আগামী নির্বাচনের মধ্য দিয়ে এর জবাব পাবেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. সামসুল আলম বকুলের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি শুক্কুর মাহামুদ, কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ। সম্পাদনা: মাহবুব আলম