প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভোটের হাওয়া: বরিশাল-৫ আসনে সম্ভাব্য প্রার্থী ১৬, মাঠে আছেন একজন

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল: বিশেষ মর্যাদার আসন বলে সর্বত্র সমাদৃত বিভাগীয় শহর বরিশাল-৫ (সদর) আসনটি প্রতিবারের ন্যায় এবারও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি সমান গুরুত্ব দিয়ে আসছেন। নির্বাচনকে সামনে রেখে এখানে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের আটজন, বিএনপির পাঁচজন, জাতীয় পার্টি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও কমিউনিস্ট পার্টির তিনজন সম্ভাব্য প্রার্থীর নাম উঠে এসেছে।

সূত্রমতে, এ আসনে বিভিন্ন দলের সর্বমোট ১৬ জন সম্ভাব্য প্রার্থীর নাম বিভিন্ন মাধ্যমে উঠে আসলেও মাঠপর্যায়ে দীর্ঘদিন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী একজন নেতা ছাড়া অন্যকাউকে তেমন একটা গণসংযোগে পাওয়া যায়নি। সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নচিত্র তুলে ধরে প্রতিনিয়ত সাধারণ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট প্রার্থনা করে চলা বরিশাল-৫ (সদর) আসনের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতা হচ্ছেন নারী জাগরনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করা মোঃ সালাহউদ্দিন রিপন।

দীর্ঘদিন থেকে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপকমিটির সদস্য সালাহউদ্দিন রিপন সংসদীয় এলাকার ১০টি ইউনিয়ন এবং মহানগরীর ওয়ার্ড পর্যায়ে নিয়মিত গণসংযোগের পাশাপাশি উঠান বৈঠক, মতবিনিময় ও পথসভা অব্যাহত রেখেছেন। সরকারের নানা উন্নয়ন নিয়ে সালাহউদ্দিন রিপনের পোস্টার, লিফলেট, ব্যানারে ছেয়ে গেছে নির্বাচনী এলাকার মাঠ, ঘাটসহ বিভিন্ন সড়ক ও মহাসড়ক।

সর্বশেষ সদর উপজেলার শায়েস্তাবাদ ইউনিয়নে প্রায় ছয় হাজার নারী-পুরুষের অংশগ্রহনে অনুষ্ঠিত উঠান বৈঠকে দলীয় নেতৃবৃন্দরা বলেন, সালাহউদ্দিন রিপন নির্বাচিত হবার আগেই ব্যাক্তিগত উদ্যোগে ১০টি ইউনিয়নের এক লাখ নারী-পুরুষকে চিকিৎসাসহ আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে স্বাবলম্ভী করেছেন। যখন কেউ বিপদে পরেন সালাহউদ্দিন রিপন তার পাশে গিয়ে দাঁড়ান। সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। কারন সালাহউদ্দিন রিপন বরিশাল সদরের সন্তান। ইতোপূর্বে আওয়ামী লীগের যারা মনোনয়ন পেয়েছেন তারা কেউই বরিশালের নন। তাই বরিশালের ছেলে সালাহউদ্দিন রিপনকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন দেওয়ার জন্য তারা দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে জোর দাবি করেছেন।

স্বেচ্ছাসেবী এস আর সমাজ কল্যান সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন রিপন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারী উন্নয়নে কাজ করছেন। তার একজন সামান্য কর্মী হিসেবে আমিও নারীদের ক্ষমতায়নে কাজ করছি। ইতোমধ্যে ১০টি ইউনিয়নের ৯০ হাজার নারীকে সহয়তা করেছি। আগামী নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পেলেও আমি নারীদের ক্ষমতায়নে কাজ করে যাবো। প্রতিটি ইউনিয়নে নারীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে একটি স্থায়ী ক্যাম্প করবো। যার মাধ্যমে নারীরা বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা নিতে পারবেন।

সদর উপজেলার রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান খোকন বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির বন্ধন অটুট রাখতে সালাহউদ্দিন রিপন সদ্যসমাপ্ত সার্বজনীন দুর্গা পূজার সময় সদর আসনের ৫৪টি মণ্ডপের প্রত্যেকটিতে অনুদান হিসেবে নগদ ১০ হাজার টাকা করে বিতরণ করেছেন। পর্যায়ক্রমে তিনি তার বিশাল কর্মী বাহিনী নিয়ে প্রতিটি মণ্ডপ পরিদর্শনে গিয়ে মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন। এছাড়া প্রতিদিনই তিনি সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের বার্তা নিয়ে প্রচার-প্রচারনা, গণসংযোগ ও সমাবেশ করেছেন। নারীদের নিয়ে ১০০টি কমিটিসহ ভোট কেন্দ্র কমিটি গঠণ করেছেন। প্রতিটি সভা সমাবেশে তিনি বিএনপি জামায়াতের দুঃশাসনের কথা মনে করিয়ে দিয়ে আগামী নির্বাচনে সকল ভেদাভেদ ভুলে উন্নয়নের স্বার্থে নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য সর্বস্তরের ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছেন।

এখানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে যাদের নাম উঠে এসেছে তারা হলেন-বর্তমান সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম, জনতা ও অগ্রণী ব্যাংকের সাবেক পরিচালক কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম, শিল্পপতি আরিফিন মোল্লা, শিল্পপতি মশিউর রহমান খান।

বিএনপির প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও বরিশাল মহানগর বিএনপির সভাপতি এ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক এমপি বিলকিস জাহান শিরিন, কেন্দ্রীয় নেতা আবু নাসের মোঃ রহমতুল্লাহ ও জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চাঁন। ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী হবেন দলের নায়েবে আমীর মাওলানা মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করিম। কমিউনিস্ট পার্টির প্রার্থী হবেন অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান সেলিম। জাতীয় পার্টির (এরশাদ) প্রার্থী হতে পারেন জেলার আহবায়ক অধ্যক্ষ মহসিন-উল ইসলাম হাবুল। বর্তমান সরকারের নানা উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড, সদ্য সমাপ্ত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের প্রভাব এবং তৃণমূলের জনপ্রিয়তায় শীর্ষে থাকা ক্লিন ইমেজের স্থানীয় প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সালাহউদ্দিন রিপনকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হলে এ আসনটি এবারও আওয়ামী লীগের ঘরে ওঠার শতভাগ সম্ভাবনা রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ