প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তরুণদের ভয় পাইয়ে দিতে সরকার গুপ্ত হত্যা শুরু করেছে : রিজভী

শিমুল মাহমুদ: বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, দেশজুড়ে আবারও শুরু হয়েছে গুপ্ত হত্যা। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে তরুণ-যুবক সমাজকে ভয় পাইয়ে দেয়ার জন্যই সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় পাইকারি গুপ্ত হত্যা শুরু হয়েছে দেশব্যাপি। আর এ ক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীকে দেয়া হয়েছে ইনডেমনিটি। কারণ একটাই, একতরফাভাবে নির্বাচন করতে তরুণ-যুবকদের কোন যেন প্রতিরোধ না হয়।

সোমবার (২২অক্টোবর) রাজধানীর নয়াপল্টনস্থ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নিরাপদ সড়কের নামে সরকার লোক দেখানো আইন করেছেন মন্তব্য করে বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আমজনতা শিশু কিশোরদের সমর্থনে রাস্তায় নেমেছিল। কিন্তু আজও সড়কে শৃঙ্খলা ফেরেনি। সরকার লোক দেখানো আইন করার কারণে গণপরিবহণের নৈরাজ্য এখনও থামেনি। শিশু-কিশোরসহ নানা বয়সের মানুষের লাশ রাজপথে থেঁতলে যাচ্ছে।

তরুণ প্রজন্মকে দেশের সবচেয়ে বড় শক্তি আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভোট চেয়ে তরুণদের উপহাস করছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সাথে সত্যের কোন সম্পর্ক নেই দাবি করে রিজভী বলেন, বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার প্রধান শেখ হাসিনাই তরুণ প্রজম্মকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে গেছেন। বেকারত্বের অভিশাপে দেশের তরুণ সমাজ আজ হতাশ ও বিপন্ন।

তিনি বলেন, কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল, কলেজের কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের উপর সরকারি বাহিনী ও ছাত্রলীগ সশস্ত্র হামলায় তারা আজো সুস্থ হয়ে উঠতে পারেনি, অনেকেই সারা জীবনের জন্য পঙ্গুত্ব বরণ করেছে।

শিক্ষামন্ত্রী সহনীয় দুর্নীতির উপদেশ দিচ্ছেন মন্তব্য করে বিএনপির এ মুখপাত্র বলেন, সরকার মেধাবীদের বাদ দিয়ে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের পাইকারি সরকারি চাকুরিতে ঢুকিয়েছেন। মেধাহীন করেছেন গোটা জাতিকে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ