প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘গণতান্ত্রিক নির্বাচন জঙ্গিদের কাছে ইসলাম সম্মত নয়, চাইবে ভণ্ডুল করে দিতে’

আশিক রহমান : নিরাপত্তা বিশ্লেষক এয়ার কমোডর (অব.) ইসফাক ইলাহি চৌধুরী বলেছেন, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় সুষ্ঠু নির্বাচন জঙ্গিদের কাছে অনৈসালিম, তারা চাইবে তা ভণ্ডুল করে দিতে। দেশে একটা সুষ্ঠু নির্বাচন হোক তারা চায় না। বরং তারা চাইবে নির্বাচন যেন ভণ্ডুল হয়ে যায়। জনগণ যেন এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে। জঙ্গিরা দেখাতে চাইবে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াটাই ব্যর্থ। ফলে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে, জঙ্গিরা যেন কখনো কোনোভাবে সংগঠিত হতে না পারে।

তিনি আরও বলেন, জঙ্গিরা নিরাপত্তা বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে থাকলেও চেষ্টা করবে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে। নির্বাচন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে মিটিং-মিছিল, জনসভা, সমাবেশে রাত পর্যন্ত চলতে থাকে। সেই সুযোগ গ্রহণ করতে পারে জঙ্গিরা। সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। বিশেষ করে রাজনৈতিক দলগুলোকে বলতে হবে নির্বাচরনের প্রচারণার সময়, ক্ষমতায় এলে জঙ্গিদের ব্যাপারে কঠোরতা অব্যাহত থাকবে। নজরদারিতে না রাখলে দুয়েক জায়গায় হামলার চেষ্টা চালাতে পারে।

এক প্রশ্নের জবাবে ইসফাক ইলাহি চৌধুরী বলেন, দেশে জঙ্গি তৎপরতা উদ্বেগজনক নয়, তবে চিন্তার বিষয়। অতীতে জঙ্গিদের অনেকেই গ্রেপ্তার হয়েছিলো, জামিন নিয়ে বেরিয়ে আবারও জঙ্গি জীবনে ফিরে গেছে। এটা আইনি দুর্বলতার কারণেই হচ্ছে। একদিকে বিচার প্রক্রিয়া সঠিক হলো না, জামিন পেয়ে চলে যায়। কোনো খোঁজখবর রাখি না। এর ফলে আবারও জঙ্গি তৎপরতায় জড়িত হয়ে পড়ে।

তিনি বলেন, জঙ্গিরা গ্রেপ্তার হওয়ার পর জামিন পেয়ে আবার আগের কর্মকাণ্ডে ফিরে যাবে দ্বিগুণ উৎসাহে। কারণ তখন সমাজে তাদের স্থায়ীভাবে স্থান হবে না। মা-বাবাও হয়তো গ্রহণ করবে না। তখন তাদের জঙ্গি পথে ফিরে যাওয়া ছাড়া কোনো উপায়ও থাকে না। এদিকে আমাদের নজর দেওয়া উচিত। কারা কর্তৃপক্ষ, নিরাপত্তা বাহিনী, আইন মন্ত্রণালয়ের উচিত সচেতনতামূলক প্রোগ্রাম চালু করা। জঙ্গি মনোভাপন্নদের যদি মানসিক চিকিৎসা দরকার হয় তাহলে মনোবিদদের পরামর্শ নেওয়া দরকার।

তিনি আরও বলেন, সবসময় বলে আসছি, নিরাপরাধ কেউ যেন শাস্তি না পায়। জঙ্গি তৎপরতার সঙ্গে জড়িতদের সুষ্ঠু সমাজে ফিরিয়ে আনতে আমাদের প্রয়াস চালাতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ