প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দায়িত্ববোধই হবে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা স্থানান্তরের প্রধান ভিত্তি: জাতিসংঘ দূত

আসিফুজ্জামান পৃথিল : দায়িত্ববোধ এবং সংলাপই হবে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্থানান্তরের প্রধান দুই ভিত্তি। জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত ক্রিশ্চিন শ্রানের বার্গেনের নিজের দশ দিনের মিয়ানমার সফর চলাকালে এ কথা বলেন। তিনি মনে করেন বিশ্বসযোগ্য সত্যানুসন্ধানই দ্বায়িত্ববোধের প্রথম ধাপ।

নিজের এ সফরে বার্গেনের মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সুচি এবং সামরিক নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। এছাড়াও তিনি রাখাইন ও কাচিন প্রদেশের সামরিক এবং বেসামরিক প্রতিনীধিদের সঙ্গেও মতবিনিময় করবেন। এছাড়াও যারা সরাসরি সহিংসতার শিকার হয়েছেন, তাদের সঙ্গেও তার আলোচনার কথা রয়েছে। এ বছর এটি তার ২য় মিয়ানমার সফর।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট কয়েকটি সীমান্ত চৌকিতে হামলার অভিযোগে রাখাইন রাজ্যে বড় ধরণের সামরিক অভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। এ সময় ৭ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা সংখ্যালঘু সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এ ঘটনাকে গণহত্যার স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ। পরবর্তীতে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সরকার তাদের প্রত্যাবর্তনের জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। শীঘ্রই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর কথা রয়েছে। ইউএননিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ