প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘টার্গেট অনুযায়ী লোক সমাগম না হলেও উদ্দেশ্য সফল’

মো.ইউসুফ আলী বাচ্চু : টার্গেট অনুযায়ী লোক সমাগম না হলেও আমাদের উদ্দেশ্য সফল হয়েছে। নেতাকর্মীরা উজ্জিবিত হয়েছে। নগরবাসী দেখছে আমরাও বড় সমাবেশ করতে পারি। আমাদের সমাবেশেও লোক হয়।

রোববার জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও এরশাদের প্রেস সেক্রেটারী শুনিল শুভরায় এ কথা বলেন। অবশ্য এই সমাবেশে চেয়ার ছোড়াছুড়ি, মারামরিতে সমাবেশের সৌন্দর্য নষ্ট হয়েছে তা নিয়ে জাতীয় পার্টির কোন নেতা কোন মন্তব্য করেনি।

উল্লেখ্য আশির দশকে ক্ষমতাশীন অবস্থায় জাপার কর্মীরা নিজেদের মধ্যে মরামারি নয় ওরা মার দিত বিরোধী কর্মীদের। বোধহয় ক্ষমতায় গেলে বিরোধীদের মারার একটি মহড়া দিল। এই সমাবেশে নিজেরা নিজেরা মারমারি করে। সমাবেশে রওশন গাইলেন গান। মনে কত যে সুখ তা ফুটে উঠেছে এই গানে। কাজেই সমাবেশ তো সফলই, নিন্দুকরা বলছে নগরীতে এই শোডাউন আসলে আওয়ামী লীগের সঙ্গে আসন নিয়ে দরকষাকষি ছাড়া আর কিছু না। ৩’শ আসনে প্রার্থী দেবে, নয়া জোট করবে, এসব শ্রেফ ভাওতা। যাই হোক তার পরও জাতীয় পার্টির সমাবেশে নগরবাসীর নজর কেড়েছে তাতে কোন সন্দেহ নাই। তাদের সমাবেশে আসা বাসগুলো এলাপাথারি রেখে শাহবাগ থেকে মৎস্য ভবন পর্যন্ত বন্ধ করে যানজটের সৃস্টি করায় নগরবাসী ভাল ভাবে জানতে পেরেছে এরশাদের সমাবেশ হয়েছে।

জাতীয় পার্টির সমাবেশে সৃষ্ট যানজটের জট খুলতে সকাল গড়িয়ে সন্ধ্যা হয়ে যায়। এসময় বাসযাত্রীদের অশ্রব্য গালাগালি এরশাদের জাপার কর্মীদের কর্নক’হরে না পৌছালেও গুলিস্থান থেকে মিরপুর, গাবতলী, উত্তরা নিমেষেই পৌছে যায়।
জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য শুনিল শুবরায় লোক সমাবেশের সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, প্রতি জেলা থেকে ২’শ বাস না আসলেও ঢাকার আশপাশ থেকে বিপুল সংখ্যক লোক সমাগম হয়েছে।

এটা ইতিবাচক, এটা এরশাদের প্রতি জনগণের আস্থার প্রতিফলন। অবশ্য এই সমাবেশ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে এক ধরনের কৌতুহল ছিল সারাদিন। তাহলে সমাবেশ বিকালে না সকালে হচ্ছে। আমাদের রাজনৈতিক সাংস্কিতির বিপরীত ¯্রােতে। তবে অনেকে বিস্মিত হয়েছে। মহা সমাবেশে এরশাদ মঞ্চে দাড়িয়ে নয় সিংহাসন আকৃতির চেয়ারে বসে বক্তব্য দিয়েছেন এতে ওই সমাবেশে অনেকের মনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। নেতা দাঁড়াতেই পারছে না। উনি কি করে কি করবেন। হঠাৎ বক্তার তালিকা সংক্ষিপ্ত হওয়ায় অনেকের মাঝে হতাশা প্রকাশ পায়। এ বিষয় গতকাল নেতাদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা জানান, জাপার নেতা একজনই। তিনি এরশাদ। তিনি বক্তব্য দিলেই হবে।

সম্পাদনা : মাহবুবুল আলম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ