প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আওয়ামী লীগে মৌসুমি নেতারা আসন ফেরত চায় বিএনপি

বাংলাদেশ প্রতিদিন : চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগের মৌসুমি নেতারা দলের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন। নির্বাচনকে সামনে রেখে এসব নেতা এলাকায় এসেছেন। এখানে আওয়ামী লীগের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বিএনপির। তবে দলীয় কোন্দলে জর্জরিত আওয়ামী লীগ প্রার্থী মনোনয়নে ভুল করলে আসনটি হাতছাড়া হতে পারে বলে এলাকায় অনেকেই মনে করেন। কারণ আসনটি ফিরে পেতে মরিয়া বিএনপি।

আসন্ন নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীরা নিজের ও দলীয়প্রধানের ছবিসহ বড় বড় পোস্টার ব্যানার টানিয়ে দোয়া চাইছেন। দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে তারা এলাকায় পথসভা ও উঠান বৈঠক করছেন। ২০১৪ সালের নির্বাচনে কানসাট বিদ্যুৎ আন্দোলনের নেতা গোলাম রাব্বানী আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে এ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। বর্তমানে এ আসনে আওয়ামী লীগের কোন্দল চরম পর্যায়ে। ঐক্যবদ্ধ হতে না পারলে আসনটি আওয়ামী লীগের হাতছাড়া হতে পারে বলে অনেকের ধারণা।

এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন— বর্তমান সংসদ সদস্য শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম রাব্বানী, সাবেক বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার (অবসরপ্রাপ্ত) এনামুল হক ও সাবেক এমপি ডা. মঈন উদ্দিন আহম্মেদের ছেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. সামিল উদ্দিন আহম্মেদ শিমুল। আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী বর্তমান এমপি গোলাম রাব্বানী জানান, শিবগঞ্জকে সন্ত্রাসের জনপদ থেকে শান্তির জনপদে পরিণত করতে দিনের পর দিন লড়াই করতে হয়েছে। এখন মানুষ শান্তিতে রয়েছে।

বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন— বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবেক সংসদ সদস্য মো. শাহজাহান মিঞা, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাহীন শওকত, বেলাল-ই-বাকী ইদ্রিশী, শিবগঞ্জ পৌরসভার দুবারের মেয়র ও জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম কবির হেলিম ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শহীদুল হক হায়দারী শহীদ মিঞা। সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক মো. শাহজাহান মিঞা জানান, শিবগঞ্জ আসনটি বিএনপির ভোটব্যাংক হিসেবে পরিচিত। সুতরাং এবার সঠিক নির্বাচন হলে বিএনপি আসনটি ফিরে পাবেন। এ ছাড়া আসনটিতে জাসদ (আম্বিয়া-প্রধান) গ্রুপের নেতা আজিজুর রহমান আজিজ প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। শিবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা মাওলানা কেরামত আলীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন জামায়াতের নেতা-কর্মীরা। জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. আলাউদ্দিনও মাঠে রয়েছেন। তবে এ আসনটিতে ২০ দল ও ১৪ দলের অন্য শরিকদের তৎপরতা তেমন নেই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ