প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঐক্যফ্রন্টের কমর্সূচি সফলে প্রস্তুতির মাঠে শুধুই বিএনপি

যায়যায়দিন :  গণফোরাম, বিএনপি, জাসদ (জেএসডি) এবং নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ে গঠিত জাতীয় ঐকফ্রন্ট ঢাকা, সিলেট, চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে কমর্সূচি করার ঘোষণা দিলেও তা সফল করার মাঠের প্রস্তুতিতে আছে শুধুই বিএনপি। প্রথম কমর্সূচি সিলেট থেকে সরকারবিরোধী আন্দোলন বেগবান ও নিবার্চনের অংশ নেয়ার আনুষ্ঠানিক বাতার্ দেয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। কমর্সূচির প্রস্তুতি ও আগামী দিনের পরিকল্পনা ঠিক করতে আজ বিকাল ৫টায় গণফোরাম কাযার্লয়ে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক ডাকা হয়েছে।

কয়েক দফা বৈঠকের পর গত শুত্রæবার ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আগামী ২৪ অক্টোবর সিলেটে মাজার জিয়ারত ও সমাবেশ, ২৬ অক্টোবর রাজধানীতে শীষর্ স্থানীয় বুদ্ধিজীবী ও পেশাজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময়, ২৭ অক্টোবর চট্টগ্রাম এবং ৩০ অক্টোবর রাজশাহীর কমর্সূচির কথা জানানো হয়।

খেঁাজ নিয়ে জানা গেছে, ঘোষিত সবগুলো কমর্সূচি বাস্তবায়নে জোর প্রস্তুতি চালাচ্ছে বিএনপি। ঐক্যফ্রন্টের নেতারা কমর্সূচি বাস্তবায়নের ব্যাপারে খেঁাজখবর রাখলেও মাঠে শুধু বিএনপিই কাজ করছে। সমাবেশের অনুমতি, দাওয়াতপত্র বিতরণ, ভেন্যু ঠিক, প্রতিটি কমর্সূচিতে নিবার্চনী আবহ তৈরি করাসহ সব কাযর্ক্রমই করছেন বিএনপি নেতারা।

জানা গেছে, ২৪ অক্টোবর সিলেটের রেজিস্ট্রি মাঠে সমাবেশের প্রস্তুতি নিচ্ছে স্থানীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। বিএনপির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের নাগরিক ঐক্যের জিননূর চৌধুরী দীপ, জেএসডির মনির উদ্দিন মাস্টার ও গণফোরামের অ্যাডভোকেট মিলেন্দু দেব সমন্বয় করছেন। তবে মূল সমন্বয়কারী হিসেবে বিএনপিই সামনে রয়েছে। সেখানে সমাবেশের জন্য আবেদন করেছেন সিলেট বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ। তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে এই আবেদন করা হলেও সমাবেশের আবেদনপত্রে তিনিই স্বাক্ষর করেছেন।

চট্টগ্রামের সমাবেশেরও পুরো প্রক্রিয়ার মূল দায়িত্ব পালন করছেন বিএনপি নেতারা। লালদীঘির ময়দানে এই সমাবেশের প্রস্তুতি চলছে। তবে এখনো আবেদন করা হয়নি বলে জানা গেছে। জানতে চাইলে বিএনপির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবে রহমান শামীম বলেন, এখনো আবেদন করা হয়নি। তবে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন জীবনকে আবেদন করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গে পরামশর্ করে এই সমাবেশের প্রস্তুতি চ‚ড়ান্ত করবেন।

এদিকে আগামী ২৬ অক্টোবর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বসে মতবিনিময় করবেন দেশের সুশীলসমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে। এই সভার সমন্বয় করছেন ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয় কমিটি।

জানা গেছে, এই মতবিনিময় সভার ভেন্যু এখনো ঠিক হয়নি। তবে সুশীলসমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ইতোমধ্যে বিএনপির পক্ষ থেকে যোগাযোগ শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনার জন্য আজ সমন্বয় কমিটিতে থাকা বিএনপি নেতাদের সঙ্গে বসবেন দলের মহাসচিব মিজার্ ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সূত্রমতে, কমর্সূচির প্রথম দিনেই অথার্ৎ সিলেট থেকে নিবার্চনের ব্যাপারে নানামুখী বাতার্ দেয়ার কথা ভাবছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। অনেকে নিবার্চনী সংকট সমাধানে সরকারের সঙ্গে শেষবারের মতো সংলাপে বসার আহŸান জানানোর পক্ষে। না হলে স্বল্প সময় দিয় আন্দোলনের মাধ্যমে সমাধানের পথ খেঁাজার হুশিয়ারি দেয়ার কথাও বলছেন কেউ কেউ। এ ছাড়া ফ্রন্টের অনেক নেতাই সিলেট থেকেই আনুষ্ঠানিকভাবে নিবার্চনে যাওয়ার ঘোষণা দেয়ার পরামশর্ দিয়েছেন। এ ছাড়া সিলেটের প্রথম কমর্সূচিতে সড়কপথে গিয়ে একটি নিবার্চনী শোডাউনের প্রস্তাব অনেকের থাকলেও এর সম্ভাবনা কম। ঐক্যফ্রন্টের অধিকাংশ নেতা আকাশপথে সিলেট যাওয়ার পক্ষে মত দিচ্ছেন। সবমিলে এসব বিষয়ে আজ গণফোরাম কাযার্লয়ে বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেবেন নেতারা।

কমর্সূচির ধরন, প্রস্তুতির বিষয়ে গণফোরামের কাযর্করী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী যায়যায়দিনকে বলেন, নানা ধরনের মত রয়েছে । তবে কোনোটাই এখনো চ‚ড়ান্ত নয়। রোববার গণফোরাম কাযার্লয়ে বৈঠক থেকে সবকিছু চ‚ড়ান্ত হতে পারে।

উৎসঃ যায়যায়দিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত