প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আফগানিস্তানে নির্বাচনি সহিংসতায় ১৩০ জন হতাহত

কায়কোবাদ মিলন : গতকাল আফগানিস্তানের পার্লামেন্ট নির্বাচনে সহিসংতায় কমপক্ষে ১৩০ জন হতাহত হয়েছেন। ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা জড়ো হলেও কয়েকশত কেন্দ্রে নির্বাচন কমিশন বুথ চালুই করতে পারেনি।
কাবুলেই নিহতের সংখ্যা বেশি। কাবুলে একাধিক বিস্ফোরণের ঘটনায় ৪ জন নিহত এবং ৭৮ জন আহত হয়েছে। এদিকে তালেবান ভোটারদের জীবন বাঁচাতে ভোট কেন্দ্রে না যেতে পুন:পুন আহবান জানিয়ে আসছিল। কুন্দুজে নির্বাচনি সহিংসতায় ৩ জন নিহত এবং ৩৯ জন আহত হয়। এই প্রাদেশিক রাজধানিতে বেশ কয়েকটি রকেট নিক্ষিপ্ত হয়।
এক স্বাধীন নির্বাচনী পর্যবেক্ষক জানান, কুন্দুজের কাছাকাছি তালেবানদের হামলায় একজন নির্বাচনী কর্মকর্তা নিহত হন এবং তালেবান হামলায় বেশ কিছু ব্যালট বাক্স ধ্বংস হয়। নানগারহার প্রদেশে ৮টি বিস্ফোরণের ঘটনায় ২ জন নিহত এবং ৫ জন আহত হয়। উল্লেখ্য, কেন্দ্রে ভোটাররা উপস্থিত থাকলেও নির্বাচনি কার্যক্রমে যুক্ত স্কুল শিক্ষকরা সময়মত উপস্থিত হতে পারেননি।
মাজারই শরীফের এক কেন্দ্রে ৪ ঘন্টা ভোট কেন্দ্রে দাঁড়িয়ে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, ভোটার তালিকায় তিনি তার নামই খুঁজে পাননি। তিনি বায়োমেট্রিক পদ্ধতির ত্রুটির কথাও উল্লেখ করেন।
প্রকাশ সম্প্রতি তালেবান হামলায় কান্দাহার পুলিশ প্রধান নিহত হলে তালেবানরা আরো বেশি সাহসী হয়ে উঠেছে। তালেবানের ভাষ্য, নির্বাচনের দিন তারা ভোট কেন্দ্র, চেকপোস্ট এবং সেনা অবস্থানের উপর সর্বমোট ৩১৮টি হামলা পরিচালনা করেছে। আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি কাবুলে ভোট দেওয়ার সময় সবাইকে ঝুঁকি সত্বেও ভোট দিতে আহবান জানান।
এদিকে তালেবান বেশ কিছুদিন ধরে প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার আহবান জানিয়ে আসছে। নির্বাচনের দিন ১০ প্রার্থী নিহত হন। জাতিসংঘ অবশ্য বলে আসছে ভোট প্রদান পবিত্র দায়িত্ব। জানা গেছে, ১০ নভেম্বর ভোটের ফলাফল প্রকাশিত হতে পারে। ইয়ন, সম্পাদনা : শরিফ উদ্দিন আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত