প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ওরা পূর্ণশক্তির দল নিয়ে এসেছে এটাই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং ’

এম এ রাশেদ: বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেছেন, জিম্বাবুয়ে পূর্ণশক্তির দল নিয়ে বাংলাদেশে এসেছে এটা আমাদের জন্য অনেক ভাল হয়েছে। আজ মিরপুরে বাংলাদেশ- জিম্বাবুয়ে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের আগে এক সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি একথা বলেন। জিম্বাবুয়ে দলে অনেক সিনিয়র খেলোয়াড় রয়েছে। এটি সীমিত ওভারের টুর্নামেন্ট যার কারণে এখানে যে কেউ যেকোনো মুহুর্তে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে।

সব কিছু মিলিয়ে টুর্নামেন্টটি অনেক চ্যালেঞ্জিং হবে বলে বিশ্বাস ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাসটিকের। উইকেটের চরিত্র কেমন হবে এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, মিরপুরের উইকেটের ভেতরটা জানি না। তবে সত্যি কথা বলতে কি, এ উইকেটের কন্ডিশন একেক সময় একেক রকম হয়ে যায়। যা আমরা গত ১৪-১৫ বছর ধরে আমরা দেখতেছি। সবসময় ভাল উইকেটে খেলতে চেয়েছি। যদিও মিরপুরের উইকেটে ভাল উইকেট সবসময় আপনি আশা করতে পারেন না। তবে ২৫০-২৬০ রান হলে ওদের জন্য অনেক কঠিন হবে।

গত ৭-৮ বছরে দেখা গেছে, বাংলাদেশ অনেকটাই স্পিন নির্ভর দল। এবার টিম বাংলাদেশ ওই স্পিন নির্ভর দল থেকে বেরিয়ে আসতে পারবে কি না এমন প্রশ্নে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের অন্যতম সেরা এ অধিনায়ক বলেন, দেখেন, আমাদের স্পিন ডিপার্টমেন্ট অনেকগুলো টুর্নামেন্টে আমাদের জিততে সাহায্য করেছে। কিন্তু বিষয়টা এমনও নয় যে, আমাদের পেসাররা ভালো করছে না।

আমরা গত ২-৩ বছরে স্পিন থেকে বেরিয়ে এসেছি এটা অনেকটাই বলা যায়। আমরা এখন স্পিন নির্ভরতা কমিয়ে পেসারদের ওপর প্রাধান্য অনেক বাড়িয়েছি। আমাদের দলে ৩-৪ জন পেসার নিয়মিত খেলছে। শুধু তাই নয়, আপনারা খেয়াল করলে দেখবেন গত ৩-৪ বছর ধরে আমাদের পেসাররা দারুণ পারফরমেন্স করছে।

সাকিব-তামিমকে ছাড়াই বাংলাদেশ খেলবে। যদিও ২০১০ সালের পরে জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশের মাটিতে কোন ওয়ানডে জিতে নি। এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, আগামী ২০১৯ বিশ্বকাপকে সামনে রেখেই এটাই তরুণদের জন্য দারুণ সুযোগ নিজেদেরকে মেলে ধরার। মাশরাফি বলেন, আমাদের দলে বিকল্প খেলোয়াড় অনেক কম। তবে সাইফুদ্দিন, ফজলে রাব্বী এরা নিজেদেরকে মেলে ধরার চেষ্ঠা করছে। মাশরাফি আরও বলেন, আল্লাহ না করুক খুব খারাপ কিছু হলে অনেক কথাই উঠবে।