প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গলায় ফাঁস দিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক: কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। শুক্রবার (১৯অক্টবর) সন্ধ্যা সাতটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাদ্দাম হোসেন আবাসিক হলের ২২৯ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

ওই ছাত্রের নাম নাজমুল হাসান। তিনি আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর ফাইনাল পরীক্ষা চলছিল। সাদ্দাম হোসেন হলের ওই কক্ষে তিনি থাকতেন। নাজমুলের বাড়ি সাতক্ষীরার তালা উপজেলার বরাত গ্রামে। তাঁর বাবার নাম আবদুল খালেক ও মায়ের নাম রোকেয়া বেগম।

নাজমুলের সহপাঠীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে নাজমুলের হার্টের সমস্যাসহ শারীরিক নানা জটিলতা ছিল। এ নিয়ে তিনি হতাশ ছিলেন। সন্ধ্যায় সবার অজান্তে তিনি আবাসিক হলে নিজের কক্ষের ফ্যানের আংটার সঙ্গে রশিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন। হতাশা থেকেই তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা সহপাঠীদের।

বিশ্ববিদ্যায়ের চিকিৎসাকেন্দ্রের ডাক্তার বদিউজ্জামান বলেন, গলায় ফাঁস দিয়ে নাজমুল আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তিনি হতাশাগ্রস্ত ছিলেন বলে জানা গেছে। ময়নাতদন্তের জন্য তাঁর মৃতদেহ হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ