প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কামাল হোসেনের ষড়যন্ত্রের ফাঁদে পা দেবে না জনগণ

মোল্লা মো. আবু কাওসার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ড. কামাল হোসেন ধংসাত্বক ষড়যন্ত্রের রাজনীতিতে নেমেছেন। তিনি জাতীয় ঐক্যের নামে যুদ্ধাপরাধী, সন্ত্রাসী এবং জঙ্গিদের সাথে জোট গঠন করেছেন। রাষ্ট্রপতি হওয়ার লোভে ষড়যন্ত্র করে রাজাকার, জঙ্গি আর সন্ত্রাসীদের ক্ষমতায় বসানো অপচেষ্টা করছেন। কিন্তু কামাল হোসেনের এই ষড়যন্ত্রের ফাঁদে পা দেবে না জনগণ। গণতন্ত্রমনা শান্তিকামী মানুষ কখনোই রাজাকার আর সন্ত্রসীদের ভোট দেবে না।

কানাডার উচ্চ আদালত বিএনপিকে সন্ত্রাসী দল হিসেবে অভিহিত করেছেন। আবার বাংলাদেশের আদালত জামায়াতকে যুদ্ধাপরাধী দল বলেছে। আমরিকা সরকার, তারেক রহমানকে সন্ত্রাসী হিসাবে চিহ্নিত করে, আমেরিকা প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। কিন্তু কামাল হোসেন এই সন্ত্রসী, যুদ্ধাপরাধী, জঙ্গিদের দিয়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করার ঘোষণা দিয়েছেন। এটা কত জঘন্য আর হাস্যকর তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

কামাল হোসেন দেশ-বিদেশে একজন সম্মানিত ব্যাক্তি। কিন্তু ক্ষমতার লোভ তাকে নর্দমায় নামিয়ে দিয়েছে। তিনি একদিকে বলছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে হাটবেন। আবার অন্যদিকে জোট করেছেন রাজাকারদের সাথে। কথার সাথে কাজের বিন্দুমাত্র  মিল নেই। ন্যায় বিচার আর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে যারা রাজাকারের সাথে জোট করে নির্বাচন করার ঘোষণা দেয়, তারা দেশ বিরোধী, রাষ্ট্র বিরোধী। কাজেই কামাল হোসেনের জোট স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ, ন্যায়বিচার এবং গণতন্ত্রবিরোধী।

দেশের মানুষ রাষ্ট্রবিরোধীদের ভোট দেবে না। আগামী নির্বাচনে জনগণ বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নৌকায় ভোট দেবে। কেননা নৌকা হচ্ছে সাধারণ মানুষের প্রতীক, গণতন্ত্রের প্রতীক, উন্নয়নের প্রতীক, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার প্রতীক, মানবতার প্রতীক, বাংলা ও বাঙ্গালির প্রতীক।

পরিচিতি : সভাপতি, সেচ্ছাসেবক লীগ/মতামত গ্রহণ : লিয়ন মীর/সম্পাদনা : ফাহিম আহমাদ বিজয়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ