প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে এম হাফিজউদ্দিন খানের সংশয়

দেবদুলাল মুন্না : আসন্ন জাতীয় নির্বাচন কি সুষ্ঠু হবে? এ প্রশ্ন তুলেছেন সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হাফিজউদ্দিন খান। গতকাল শুক্রবার কালের কণ্ঠে তিনি লিখেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচনই এখন বড় চ্যালেঞ্জ। এদেশে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হতে গেলে প্রথমে দরকার আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন। সরকার ও বিরোধীদল যে যার অবস্থানে যদি অনঢ় থাকে তাহলে তো সংঘাত অনিবার্য। ইসির নিরপেক্ষ ভূমিকা, নির্বাচনের আচরণবিধি, সব দলের সমান অংশগ্রহণের সুন্দর পরিবেশ নিশ্চিত করা, নির্বাচনী পরিবেশ তৈরি করা এগুলো তৈরি করতে হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনো অবস্থা দেখতে পাচ্ছি না। সরকার কোনপ্রকার ছাড় দিতে রাজী নয়। সুষ্ঠু নির্বাচন করতে হলে সংসদ ভেঙে দিতে হবে। একটা নির্দলীয় সরকার গঠন করতে হবে। সব দলের সমান সুযোগ সুবিধা দিতে হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত এসবের কোন লক্ষণ দেখছি না।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) তো নতুনভাবে কোন সিদ্ধান্ত নেবে বলে মনে হয় না। নিরপেক্ষ থেকে বা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ইসি জোরালো ভুমিকা রাখতে পারবে বলে মনে হয় না ।

এদিকে জাতীয় নির্বাচনের আগে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার আরও বিব্রতকর অবস্থা তৈরি করতে পারেন, এমন আশঙ্কা করছে সরকার। এ কারণে সরকারের বিরাগভাজন তিনি। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪–দলীয় জোট মাহবুব তালুকদারের পদত্যাগের দাবি তুলেছে। সরকারের মন্ত্রীরাও এরমধ্যে মাহবুবের পদত্যাগ চেয়েছেন।

এরই মাঝে আগামী জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের পথ সুগম করতে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও) সংশোধনী আনার উদ্যোগ নিয়েছিলো। এই উদ্যোগে আপত্তি জানান মাহবুব তালুকদার। যেদিন আরপিও সংশোধনের প্রস্তাব ইসি অনুমোদন করেছিল, সেদিন মাহবুব তালুকদার সভা বর্জন করেছিলেন। সম্পাদনা : সালেহ্ বিপ্লব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ