প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাবার মৃত্যু নিয়ে ফেসবুকে ছেলের স্ট্যাটাস

বিনোদন প্রতিবেদক: বাংলা সঙ্গীত জগতের কিংবদন্তী। তিনি নিজেই ছিলেন নিজের উদাহরণ। উপমাহাদেশে তিনি তার গিটারের সুরের জন্য জায়গা করে নিয়েছিলেন শ্রেষ্ঠ আসন, তিনি আমাদের আইয়ুব বাচ্চু। সবাইকে কাদিয়ে বৃহস্পতিবার উড়াল দিলেন অজানা পৃথিবীতে। বাবাকে হারিয়ে দেশের বাইরে থাকা আইয়ুব বাচ্চুর বড় ছেলে আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুব তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসে দিয়েছেন।

তিনি লিখেছেন, ‘আমি আশা করি আপনি যেখানেই থাকুন ঠিক আগের মতোই এইরকম করে হাসছেন। আমি আপনাকে ভালোবাসি, আপনাকে ছাড়া পৃথিবীটা খালি মনে হচ্ছে। যারা এই লেখা পড়ছেন তারা আমার বাবার মৃত আত্মার জন্য প্রার্থনা করুন।’

আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রাম শহরের এনায়েতবাজারে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মোহাম্মদ ইসহাক ও মা নূরজাহান বেগম। ১৯৭৮ সালে ফিলিংস ব্যান্ডের মাধ্যমে তাঁর পথচলা শুরু। ১৯৮০ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত ছিলেন সোলস ব্যান্ডের লিড গিটারিস্ট।

আইয়ুব বাচ্চুর অ্যালবাম এলআরবি বাজারে আসে ১৯৯২ সালে। এলআরবিই দেশের প্রথম ডাবল ও আনপ্লাগড অ্যালবাম প্রকাশ করে। সুখ, তবুও, ঘুমন্ত শহরে, ফেরারি মন, আমাদের বিস্ময়, মন চাইলে মন পাবে, অচেনা জীবন, মনে আছে নাকি নাই, স্পর্শ, যুদ্ধ এলআরবির জনপ্রিয় অ্যালবাম।

একক অ্যালবামেও ঈর্ষণীয় সাফল্য পেয়েছেন ক্ষণজন্মা এই শিল্পী। তার একক অ্যালবামের মধ্যে কষ্ট, সময়, একা, প্রেম তুমি কি, দুটি মন, কাফেলা, জীবনের গল্প উল্লেখযোগ্য। কিছু চলচ্চিত্রেও প্লেব্যাক করেছেন আইয়ুব বাচ্চু।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ