প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্লক মার্কেটে সাড়ে ৬৩ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন

ফয়সাল মেহেদী : বিদায়ী সপ্তাহজুড়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে ৫৪টি প্রতিষ্ঠানের সাড়ে ৬৩ কোটি টাকারও বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্যমতে, বিদায়ী সপ্তাহে ব্লক মার্কেটে ৬৩ কোটি ৫৯ লাখ ৬০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর আগের সপ্তাহে এ মার্কেটে লেনদেন হয়েছিল ১৪৫ কোটি ২১ লাখ ৬০ হাজার টাকার। অর্থাৎ বিদায়ী সপ্তাহে ব্লক মার্কেটে লেনদেন আগের সপ্তাহ থেকে ৮১ কোটি ৬২ লাখ টাকা বা ৫৬.২০ শতাংশ কম হয়েছে।

ব্লকে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি টাকার লেনদেন হয়েছে স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালসের। কোম্পানিটির মোট ১৬ কোটি ৫৭ লাখ ১০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩ কোটি ৯৭ লাখ ৫০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে বিডি ফাইন্যান্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ২ কোটি ৫৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের।

এছাড়া রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্সের ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার, অ্যাডভেন্ট ফার্মার ৩৫ লাখ টাকার, ম্যাকসন্স স্পিনিংয়ের ১৩ লাখ ৪০ হাজার টাকার, প্রগতি ইন্স্যুরেন্সের ৭১ লাখ ৫০ হাজার টাকার, বিবিএস কেবলসের ১ কোটি ১৭ লাখ ২০ হাজার টাকার, নূরানী ডাইংয়ের ৩০ লাখ ৮০ হাজার টাকার, শাশা ডেনিমসের ১১ লাখ ২০ হাজার টাকার, গ্রামীণ ফোনের ১ কোটি ৪৫ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ইনটেকের ২২ লাখ ৮০ হাজার টাকার, স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের ৯০ লাখ ৫০ হাজার টাকার, কনফিডেন্স সিমেন্টের ৭০ লাখ ৬০ হাজার টাকার, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ৫৭ লাখ ৩০ হাজার টাকার, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলের ৪৭ লাখ ৩০ হাজার টাকার, ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের ৫ লাখ ৩০ হাজার টাকার, খুলনা পাওয়ারের ২৩ লাখ ৮০ হাজার টাকার, লাফার্জহোলসিমের ২ কোটি ৩৯ লাখ ২০ হাজার টাকার, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের ৭৬ লাখ ৩০ হাজার টাকার, তিতাস গ্যাসের ৬১ লাখ ২০ হাজার টাকার, ট্রাস্ট ব্যাংকের ১ কোটি ৩ লাখ ২০ হাজার টাকার, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ৭৪ লাখ ৮০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এছাড়া উত্তরা ব্যাংকের ১ কোটি ১৫ লাখ ২০ হাজার টাকার, স্যোসাল ইসলামী ব্যাংকের ৭৯ লাখ ৬০ হাজার টাকার, সিমটেক্সের ১ কোটি ৮৯ লাখ ৯০ হাজার টাকার, সাউথইস্ট ব্যাংকের ৮৯ লাখ টাকার, মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ৯৮ লাখ ৮০ হাজার টাকার, ন্যাশনাল ব্যাংকের ৯৬ লাখ ৬০ হাজার টাকার, এনসিসি ব্যাংকের ৭৯ লাখ ২০ হাজার টাকার, অলিম্পিকের ২ কোটি ৪৬ লাখ টাকার, ওয়ান ব্যাংকের ১ কোটি ৪ লাখ ৩০ হাজার টাকার, প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৯৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এছাড়াও পূবালী ব্যাংকের ৬৮ লাখ ৭০ হাজার টাকার, রূপালী ব্যাংকের ৮৫ লাখ ৭০ হাজার টাকার, জিপিএইচ ইস্পাতের ১ কোটি ১ লাখ ১০ হাজার টাকার, ইফাদ অটোসের ৩৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার, আইএফআইসির ১ কোটি ১ লাখ টাকার, ইসলামী ব্যাংকের ৭১ লাখ ৩০ হাজার টাকার, যমুনা ব্যাংকের ৯১ লাখ ৫০ হাজার টাকার, কেয়া কসমেটিকসের ৭০ লাখ ৪০ হাজার টাকার, মালেক স্পিনিংয়ের ৩৭ লাখ ২০ হাজার টাকার, মেঘনা সিমেন্টের ৬৮ লাখ ৮০ হাজার টাকার, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৯৩ লাখ ৮০ হাজার টাকার, ডেসকোর ৬১ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ঢাকা ব্যাংকের ৮২ লাখ ৭০ হাজার টাকার, ইস্টার্ন হাউজিংয়ের ৮৩ লাখ ৩০ হাজার টাকার, এক্সিম ব্যাংকের ৮৩ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ৭০ লাখ ৭০ হাজার টাকার, বেক্সিমকোর ১ কোটি ১১ লাখ ৯০ হাজার টাকার, আমান কটনের ১৩ লাখ টাকার, একটিভ ফাইনের ৯৮ লাখ ৭০ হাজার টাকার ব্যাংক এশিয়ার ৭৯ লাখ ৩০ হাজার টাকার এবং নাভানা সিএনজির ১ কোটি ২৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ