Skip to main content

শুধু ম্যাচই নয়, আব্বাসের কাছে সিরিজও হারলো অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক : ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো এক টেস্টে দশ উইকেট শিকার করলেন পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ আব্বাস। আর সেই প্রথম দশের স্বাদে পাকিস্তানও সিরিজ জিতলো। ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় ৫৩৮ রানের লিড দাঁড় করানো পাকিস্তান আবুধাবি টেস্ট জয় করে ৩৭৩ রানের বিশাল ব্যবধানে। শুধু তাই নয়, পুরা দেড়দিন হাতে রেখে ম্যাচ জয় করে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ জিতে নিয়েছে ১-০ ব্যবধানে। মরুর বুকে দুবাইতে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে জয়ের সুবাস পেতে থাকলেও তা ম্লান করে দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ওসমান খাজা। তবে আবুধাবিতে পাকিস্তানের জয় আর কেউ ঠেকাতে আসেননি। আসলে আসবে কি করে, মোহাম্মদ আব্বাস যে এই টেস্টে রুদ্রমূর্তি ধারণ করেছিলেন। প্রথম টেস্টে ৭ উইকেট শিকারের পর আবুধাবি টেস্টে ১০টি শিকার। প্রথম ইনিংসে ১৩৮ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে পুরোপুরি ৪০০ রান করে সরফরাজ বাহিনী। যার ফলে অস্ট্রেলিয়ার সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৫৩৯ রানের। পাহাড়সম এই লক্ষ্য নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামার আগে দুঃসংবাদ শুনতে হয় অজিদের। আগের ম্যাচের ত্রাতা ওসমান খাজা খেলতে পারেননি দ্বিতীয় ইনিংসে। ফলে একেবারে চিড়েচ্যাপ্টা হয়েই হারতে হয়েছে টিম পেইনদের। অজিদের হাল ধরতে কাউকেই এগিয়ে আসতে দেখা যায়নি। বড় কোনো জুটি দাঁড় করাতে পারেননি কেউই। ব্যক্তিগত কোনো অর্ধশত স্কোরও গড়েননি কেউ। পাকিস্তানের প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানরে জবাবে অজিরা করেছিল ১৪৫ এবং দ্বিতীয় ইনিংস মাত্র ১৬৪ রানেই। যেখানে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে পাক বাহিনী করেছিল ইনিংস ঘোষণা করা ৪০০ রান। আবুধাবি টেস্টটা পুরোপুরি নিজের করে নিয়েছেন মোহাম্মদ আব্বাস। প্রথম পেসার হিসেবে আরব আমিরাত দশ উইকেট শিকার। ১২২ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম গড়ে ৫০ উইকেট। মাত্র ১০ টেস্টে ৫০ উইকেটের যৌথ রেকর্ড। সর্বশেষ আনঅফিসিয়ালি বিশ্বের এক নাম্বার টেস্ট বোলারও এখন মোহাম্মদ আব্বাস। প্রথম টেস্টে ৭ উইকেট নেওয়া আব্বাস দ্বিতীয় টেস্টে ম্যাচ সেরা হন দশ উইকেট নিয়ে। আর দুই ম্যাচে মোট ১৭ উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরাও নির্বাচিত হন আব্বাস। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ শেষে এখন দু’দল মুখোমুখি হবে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হবে আগামী ২৪ অক্টোবর থেকে। ২৪, ২৬ এবং ২৮ অক্টোবর তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। সিরিজের প্রথম ম্যাচ আবুধাবিতে এবং বাকি দুটি ম্যাচে অনুষ্ঠিত হবে দুবাইয়ের মাঠে।