প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিকল্পধারার ভবিষ্যত কী

দেবদুলাল মুন্না : বিএনপি থেকে সাবেক রাষ্ট্রপতি একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, তার ছেলে মাহী বি. চৌধুরী এবং মেজর (অব.) মান্নান পদত্যাগ করে তৈরি করেছিলেন বিকল্পধারা। নতুন দল গঠনের পর তাদের একটি মিছিলে তৎকালীন ক্ষমতাসীন দল বিএনপি হামলা চালালে রেললাইনের ওপর দিয়ে দৌড়ে পালিয়েছেন তখন অনেকে। এরপর দলটির কার্যক্রম বিবৃতি নির্ভর ছিল বহুদিন। গত ১৩ অক্টোবর শনিবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের আগ মূহূতের্ দলটি আবার সক্রিয় হয়ে ওঠে। এরপর বেশি আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরীর আচরণ নিয়ে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের আগে মাহী বি. চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি এখানে জাতীয় ঐক্য করে, আর ২০ দলীয় জোটে জামায়াতের সঙ্গে পরকীয়া করে।

অন্যদিকে, জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব আর নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নার মূল বিয়ে হচ্ছে এখানে- যুক্তফ্রন্টে। আর তাদের পরকীয়া হচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে। ফলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের আলোচনা যখন তুঙ্গে ছিল তখনই মাহী বি. চৌধুরীর এমন কর্মকা- নিয়ে অসন্তোষ বাড়ে জোটের নেতাদের মধ্যে। এরপরই গুঞ্জন শুরু হয় বিকল্পধারাকে বাদ দিয়ে জাতীয় ঐক্য গঠন করা হচ্ছে। গত ১৩ অক্টোবরে তারই প্রতিফলন ঘটেছে। বিকল্পধারাকে বাদ দিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করা হয়েছে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী গত সোমবার রাতে বিকল্পধারার সভাপতি একিউএম কদরুদ্দোজা চৌধুরীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে বিকল্পধারাকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আমন্ত্রণ জানান। কিন্তু বিকল্পধারা এতে রাজি হয়নি। বৈঠক শেষে মাহী বি. চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, আমরা ডা. জাফরুল্লাহকে বলেছি, আমাদের মতামত স্পষ্ট। স্বাধীনতাবিরোধীদের সঙ্গে কোনো ঐক্যে যাব না। সেদিন ড. কামাল হোসেন দাওয়াত দিয়ে যে বাসায় ছিলেন না, সে জন্য দু:খ প্রকাশ করেছেন জাফরুল্লাহ । বিকল্পধারা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটে যাবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে মাহী বলেন, ‘আজকের দুঃশাসনের সরকারের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই। বিকল্পধারা জন্মের পর থেকে কোনো জোটে যেতে পারেনি। সুতরাং এই ধরনের কোনো সম্ভাবনা নেই। ’

এদিকে বিকল্পধারার একটা বড় অংশ ইতোমধ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যোগ দিচ্ছেন। যারা ওই ফ্রন্টে যোগ দিচ্ছেন তাদের বিকল্পধারা থেকে বহিষ্কারও করা হচ্ছে ধাপে ধাপে। এ বিষয়ে বিকল্পধারা থেকে বহিষ্কৃত নেতা শাহ আহমেদ বাদল বলেন, আমরা একটি অংশ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। শিগগিরই সভা ডেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করব। তিনি বলেন, বিকল্পধারার কেন্দ্রীয় কমিটি ৭১ সদস্যের হলেও এখন রয়েছে ২৫ থেকে ২৬ জন। এর মধ্যে কৃষিবিষয়ক সম্পাদক জানে আলম, সমবায়বিষয়ক সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাবলু, যোগাযোগবিষয়ক সম্পাদক খন্দকার জোবায়ের, প্রচার সম্পাদক প্রকৗশলী জুন্নু, কৃষক ধারার আহ্বায়ক চাষী এনামুল, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক শিপরা রহিম, সদস্য নূর মুহাম্মদ, মিজানুর রহমান চৌধুরী, আবদুল মতিনসহ ১৭ জনই আমাদের সঙ্গে রয়েছেন। সম্পাদনা : নুসরাত শরমীন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ