প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৫ মহাদেশ, ২২ দেশের ৫১ জন খেলবে বাংলাদেশে

প্রথম আলো: সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশের ক্লাবগুলোতে আফ্রিকান ফুটবলারদেরই প্রাধান্যই ছিল। খুব সস্তায় পাওয়া গা জোয়ারি ফুটবলারদের দলে ভেড়াতে পারলেই যেন বর্তে যেত তারা। তবে দৃশ্যপটটা এবার বদলে যাচ্ছে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের নতুন মৌসুমে খেলতে দেখা যাবে বিভিন্ন দেশের ফুটবলারদের। নির্দিষ্ট করে বললে প্রিমিয়ার লিগে এবার পাঁচ মহাদেশের ২২ দেশের ৫১ ফুটবলারকে খেলতে দেখা যাবে। বাংলাদেশের ফুটবল ইতিহাসে কখনোই কোনোবার এত দেশ থেকে ফুটবলার খেলতে দেখা যায়নি।
নতুন মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে খেলবে ১৩টি দল। বাফুফের নিয়ম অনুযায়ী সর্বোচ্চ চারজন করে বিদেশি ফুটবলার দলে নিতে পারবে ক্লাবগুলি। এখনো পর্যন্ত চারজন করে বিদেশি ফুটবলার দলভুক্ত করেছে ১২টি ক্লাব। কেবল নবাগত নোফেল স্পোর্টিং ক্লাব এশীয় কোটায় কাউকে দলে না নেওয়ায় তাদের বিদেশির সংখ্যা তিনজন। ৫১ জন বিদেশি ফুটবলারের মধ্যে সর্বোচ্চ ২৪ জন আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের। এশিয়া থেকে ১৪জন, লাতিন আমেরিকার দেশগুলি থেকে আটজন এসেছেন। এ ছাড়া উত্তর আমেরিকা থেকে তিনজন আর ইউরোপ থেকে দুইজন খেলবেন এবারের প্রিমিয়ার লিগে।
নির্দিষ্ট একটি দেশ হিসেবে নাইজেরিয়া থেকেই আসছে সর্বোচ্চ ১৩ ফুটবলার। চারজন করে ব্রাজিল, উজবেকিস্তান ও গাম্বিয়া থেকে। তিনজন আছেন জাপান, ক্যামেরুন ও কিরগিজস্তানের। দুইজন আছেন গিনি ও দক্ষিণ কোরিয়ার। একজন করে আছেন কোস্টারিকা, স্পেন, পেরু, ইরাক, হাইতি, আফগানিস্তান, আর্জেন্টিনা, ত্রিনিদাদ ও টোব্যাগো, আইভরিকোস্ট, কঙ্গো, কানাডা, কলম্বিয়া ও রাশিয়া থেকে।

বিদেশি ফুটবলারে সবচেয়ে বড় চমকটা দেখিয়েছে নবাগত বসুন্ধরা কিংস। রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলা কোস্টারিকান স্ট্রাইকার দানিয়েল কলিন্দ্রেসকে দলে ভিড়িয়েছে তাঁরা। একই দলে আছেন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার মার্কোস ভিনিশিয়াস, স্প্যানিশ ডিফেন্ডার জর্জ গোটর ব্লাস আর কিরগিজস্তানের ডিফেন্ডার বখতিয়ার দুশোবেখ। বসুন্ধরার পরে বিদেশি কোটায় ভালো ফুটবলার নিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী লিমিটেড। আকাশি-নীল জার্সিতে খেলতে দেখা যাবে ২০১৬ কোপা আমেরিকায় খেলা হাইতিয়ান স্ট্রাইকার কারভেনস বেলফোর্ট, আফগান মিডফিল্ডার মাশি সাইগানি, কোরিয়ান কো কো মিন ও নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার সানডেকে। চট্টগ্রাম আবাহনীও চমক দেখিয়েছেন কিরগিজস্তান জাতীয় দলের সহঅধিনায়ক ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল ট্যাগোকে নিয়ে।
এ ছাড়া বাকি উল্লেখযোগ্য ফুটবলারদের মধ্যে ২০১২-১৩ মৌসুমে ট্রেবলজয়ী শেখ রাসেলে এসেছে ব্রাজিলের অ্যালেক্স রাফায়েল ও উজবেকিস্তানের আজিজভ আলিশের। ব্রাদার্সেও আছে চমক। পুরানো ব্রাজিলের এভারটনের সঙ্গে স্বদেশি ভিয়েরা লিয়ানার্দো, পেরুর জ্যাক উইলজার ও ইরাকের মুয়াইদ খালিদ আল খামিশিয়েকে নিয়েছে তারা। মারুফুল হকের আরামবাগে নতুন বিদেশি মালয়েশিয়া প্রিমিয়ার লিগ খেলা রাশিয়ার ইকবল বাবাখানভ।
গত বছর তিন বিদেশি নিবন্ধন করে খেলানো যেত দুইজনকে। বিদেশির বদলি ছিল বিদেশি। এবার কোটা চারজন, খেলতে পারবেন সবাই। এবার বল মাঠে গড়ালেই বোঝা যাবে কোন দলের কোন খেলোয়াড় কেমন। ২৫ অক্টোবর থেকে শুরু হবে মৌসুম সূচক ফেডারেশন কাপ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ