প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতে মানুষ খেকো বাঘের খোঁজে দেড়’শ শিকারি নিয়োগ

রাশিদ রিয়াজ : ভারতের মহারাষ্ট্রে গত চার বছরে ১৩ জন মানুষকে খেয়ে ফেলার পর বাঘিনীটিকে ধরতে অন্তত দেড়’শ শিকারি নিয়োগ দেয়া হয়েছে। শিকারিদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে হয় বাঘটিকে ধরতে হবে অথবা মেরে ফেলতে হবে। গত জানুয়ারিতে ভারতের আদালতে ওই বাঘটিকে ধরতে অথবা মেরে ফেলার আদেশ দেওয়া হয়। এরপর থেকে শিকারিরা হন্যে হয়ে তন্ন তন্ন করে বনজঙ্গল চষে বেড়ালেও বাঘটির দেখা মিলছে না। মিরর

এদিকে বাঘটিকে হত্যা না করে বাঁচিয়ে রাখার জন্যে অনলাইনে আবেদন জানিয়েছে ৩ হাজার প্রাণিরক্ষা কর্মী। তারা শিকারিদের ওই বাঘ শিকার বন্ধের আহবান জানিয়েছেন। শিকারিরা বলছেন, আমরা চাই না বাঘটিকে হত্যা করতে কিন্তু তা ক্রমশঃ কঠিন হয়ে পড়েছে। বন্যপ্রাণিদের জীবন নিয়ে লেখালেখি করেন নাভিন ও প্রানিরক্ষা কর্মী সুনীল লিমায়া বলেন, ওই বাঘটির ওজন ৩’শ পাউন্ড এবং মনে করা হচ্ছে প্রাণিটি ১৩ জনকে হত্যা করেছে কিন্তু এর কোনো প্রমাণ নেই। কারণ মহারাষ্ট্রের যাভাতমাল এলাকাটি ঘনজঙ্গলে পরিপূর্ণ এবং কোনো একটি বাঘকে একাধিক মানুষ হত্যার জন্যে চিহ্নিত করা প্রায় অসম্ভব।

বন কর্মকর্তারা অবশ্য বলছেন যদিও আদালত বাঘটিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছে কিন্তু তাকে জ্যান্ত ধরতে পারলেই বরং তারা খুশি হবে। আমাদের প্রথম লক্ষ্য হল তাকে অজ্ঞান করে ধরে ফেলা এবং এজন্যে আমরা সবধরনের চেষ্টা করছি। শিকারিদের সাহায্যে পাঁচটি হাতীও নামানো হয়েছে। এছাড়া চেঞ্জ ডট অর্গে ওই বাঘটিকে হত্যা না করার আহবান সম্বলিত এক বলা হয়েছে, ‘বাঘ হত্যা বন্ধ করুন’, প্রশ্ন তোলা হয়েছে, কে শিকারি এবং কাকে শিকার করা হবে?

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ