প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘রায়ে কি হবে অনুমান করতে খুব বেশি বুদ্ধিমান হওয়ার প্রয়োজন নাই’

শিহাবুল ইসলাম : বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, জিয়া চ্যারিট্যাবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে রায় দিলে, রায়ে কি হতে পারে এটা অনুমান করার জন্য খুব বেশি বুদ্ধিমান হওয়ার প্রয়োজন নাই।

জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের রায় বাতিলের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি একথা বলেন। সমাবেশের আয়োজন করে সম্মিলিত ছাত্র ফোরাম নামের একটি সংগঠন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নজরুল ইসলাম বলেন, সরকারের গঠন করা মেডিকেল বোর্ডের সুপারিশে বেগম খালেদা জিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ অবস্থায় আদালতে গিয়ে (জিয়া চ্যারিট্যাবল ট্রাস্ট মামলা) আত্মপক্ষ সমর্থন করা তার পক্ষে সম্ভব নয়। এজন্য আমাদের আইনজীবীরা আদালতকে বলেছিলেন তিনি সুস্থ হয়ে ফিরে আসা না পর্যন্ত এই মামলার কার্যক্রম স্থগিত রাখা হোক। কিন্তু আদালত বলেছেন মামলা চলতে পারে।

মামলা চলতে পারে এই নির্দেশ মানে এই না যে তাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে রায় দিয়ে দেওয়া।  কত মামলা, হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ মামলা বছরের পর বছর ধরে পড়ে আছে,  কতো বড় বড় অপরাধীরা নির্বিঘ্নে ঘুরে বেরাচ্ছে,  ১৩ বছরের সাজা মাথায় নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতারা মন্ত্রীত্ব করছেন। তার পরেও আমরা দেখলাম যে বেগম খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। কি রায় হতে পারে এটা অনুমান করার জন্য খুব বেশি বুদ্ধিমান হওয়ার প্রয়োজন নাই।

তিনি বলেন, আমরা এমন একটা সময় অতিক্রম করছি। যখন কেউ সুবিচার পাচ্ছে না। যে দেশের বিচারককে রায় দেয়ার কারণে দেশ ছাড়তে হয়, সে দেশে কেউ বিচার পাবে তা বলা যায় না। সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। তাই তারা জনগণের কাছে দায়বদ্ধও নয়। তারা যেভাবে জোর করে ক্ষমতায় এসেছে, সেভাবে জোর করে ক্ষমতায় থাকতে চান। বিচার চলাকালে বিচারাধীন মামলা নিয়ে মন্তব্য করা যায় না এটা জানার পরও প্রধানমন্ত্রী বার বার বলেছেন খালেদা জিয়া এতিমের টাকা চুরি করেছেন।

সাবেক এই শ্রমিক নেতা বলেন, ড. কামাল হোসেনকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী করেছিল আওয়ামী লীগ, মাহমুদুর রহমান মান্না, আ স ম আবদুর রব সবাই তাদের লোক ছিল। কিন্তু তারা এখন আওয়ামী লীগের কাছে খারাপ হয়ে গেছে।  কারণ আওয়ামী লীগের খারাপ কাজগুলো তারা পছন্দ করেন না বলে সবাই বের হয়ে এসেছেন।

সম্মিলিত ছাত্র ফোরামের আহ্বায়ক নাহিদুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, খালেদা ইয়াসমিন প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ