প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কৌশলী আন্দোলনে বিএনপি

উল্লাস মূর্তজা : জনমত গঠনের ওপর গুরুত্ব দিয়ে বিএনপি তাদের আন্দোলনের কৌশল ঠিক করছে। তবে তফসিল ঘোষণার পর পাল্টে যেতে পারে বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসুচী। রাজপথে শক্তি প্রদর্শনের চলছে প্রস্তুতি। এজন্য কেন্দ্র থেকে তৃনমূলে দেওয়া হয়েছে বিশেষ দিক নির্দেশনা। নেতারা বলছেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট হলেও নিজেদের সাংগঠনিক ভিত্তি মজবুততো করতেই হবে।

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট গঠনের পর অনেকটাই চাঙ্গা বিএনপি। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের নানামত থাকলেও, বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট ডা.বদরুদ্দোজা চৌধুরী ঐক্যফ্রন্টে না থাকায় খুব একটা অস্বস্তি নেই দলটিতে। বিএনপি নেতাকর্মীদের উপলব্ধি, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া থেকে আরও আগেই দুরে রাখা উচিৎ ছিল বিকল্পধারাকে।

দলীয় নেতাকর্মীরা মনে করেন, আইনিভাবে খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয়। রাজপথে শক্তি দেখানো ছাড়া পূরণ হবে না নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবী। এমন বাস্তবতায় ঐক্যফ্রন্টের সাথে কর্মসূচীতে যাবে বিএনপি। তফসিল ঘোষণার আগে জনমত গঠনের উপর গুরুত্ব দিতে চায় দলটি।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘আমরা জনগণকে সাথে নিয়েই আন্দোলনে যেতে চাই। আন্দেলনের গতি প্রকৃতি আরও জোরদার করতে চাই। যাতে করে সরকার আলোচনা করতে বাধ্য হয়। যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে তাদের উচিৎ পরিস্থিতির পরিবর্তন করা। জনগণ এমন পরিস্থিতি চায় যাতে তারা নির্বিঘেœ ভোট দিতে পারে।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের লড়াইটা জনগণের জন্য। তাই জনগণকে সম্পৃক্ত করেই আমরা আন্দোলনে যেতে চাই। জনগণকে সাথে নিয়ে এই আন্দোলনে জয়ী হতে চাই। যারা আজ অবৈধভাবে জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছে, তাদের নির্ভরশীলতা হচ্ছে, রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকা। জনগণকে বাইরে রেখে ক্ষমতা ধরে রাখা। বিএনপির ব্যাপারটা ঠিক উল্টো।’

বিএনপি নেতাকর্মীরা বিশ্বাস করেন, বৃহত্তর ঐক্য হলেও দাবী আদায়ের জন্য রাজপথেই থাকতে হবে । তাই সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছে দলটি। কেন্দ্র থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, গ্রেফতার এড়িয়ে কৌশলে দলীয় কর্মকা- পরিচালনা করার।

যুক্তফ্রন্ট গঠনকে কেন্দ্র করে টানাপোড়েন শুরু হয়েছে ২০ দলে। মঙ্গলবার ২০ দলীয় জোট ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে ন্যাপ ও এনডিপি এ বিষয়গুলো সমাধান করে সবাইকে সাথে নিয়ে আগামী নির্বাচনের দিকে যেতে চায় বিএনপি। তবে সবার একটাই দাবি, আগে দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত