প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মিরপুর স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ট্রফি

এম এ রাশেদ: ইংল্যান্ডে ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ১২তম আসর বসবে। এ আসরে ১৪টি দেশ একটি সোনালী ট্রফির জন্য লড়বে। ওমান, যুক্তরাষ্ট্র, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের পর বিশ্বকাপের এ ট্রফিটি এসেছে বাংলাদেশে। বুধবার সকালে হোম অব ক্রিকেট খ্যাত মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আসে ২০১৯ বিশ্বকাপের ট্রফি। চার দিনের সফরে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটের ক্রিকেট ভক্তরা সুযোগ পাচ্ছেন ১০ দশমিক ৮০ কেজি ওজনের এবং ৬৪ সেন্টিমিটার উচ্চতার ট্রফিটি দেখার। পাশাপাশি সুযোগ পাচ্ছেন এই সোনালী ট্রফির সঙ্গে ছবি তোলার।
ক্রিকেট খেলুড়ে দেশে বিশ্বকাপের আগে ট্রফি আসাটাই রীতি। সেটি মেনেই এবারও ট্রফি এসেছে বাংলাদেশে। পাকিস্তান থেকে বুধবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এসে পৌঁছায় স্বপ্নের বিশ্বকাপ ট্রফি। সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির সামনে ট্রফি উন্মোচন করেন প্রধান নির্বাচক ও সাবেক অধিনায়ক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। ট্রফি উন্মোচন শেষে আনুষ্ঠানিক ফটো সেশনে অংশ নেন ইউনিসেফের তত্ত্বাবধানে সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা। এরপর ফটো সেশনে অংশ নেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা।
বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ভক্তদের কাছ থেকে দেখার ও ছবি তোলার জন্য ট্রফিটা রাখা হবে যমুনা ফিউচার পার্কে। সেখান থেকে ট্রফিটি চলে যাবে সিলেটে। শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের ফটো সেশনের পর বেলা ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ট্রফিটি রাখা হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এরপর বিকাল সাড়ে ৪টায় তা নিয়ে যাওয়া হবে সিলেট ক্যাডেট কলেজ হাইস্কুলে। শনিবার (২০ অক্টোবর) সিলেট ঘুরে ট্রফি যাবে চট্টগ্রামে। সেখানে বেলা ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ট্রফিটি রাখা হবে এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে। এর পরদিন বাংলাদেশ থেকে নেপাল ভ্রমণে যাবে ট্রফি।
বিশ্বকাপের এ সোনালী ট্রফি গত ২৭ আগস্ট ভ্রমণে বের হয় । ৯ মাসে মোট ২১টি দেশের ৬০টি শহর ভ্রমণ করবে এটি। এ ট্রফি অর্জনে সামনের বছর ৩০ মে থেকে ১৪ জুলাই বিশ্বকাপের লড়াই চলবে। বাংলাদেশসহ সেখানে অংশ নেবে আরও নয়টি দেশ। বাংলাদেশ শেষে নেপাল, ভারত, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, কেনিয়া, রুয়ান্ডা, নাইজেরিয়া, ফ্রান্স, বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস ও জার্মানি হয়ে আগামী বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ ইংল্যান্ডে পৌঁছাবে। যদিও নিরাপত্তার কারণে আইসিসির টেস্ট খেলুড়ে দেশের মর্যাদা অর্জন করা আফগানিস্তানে যাচ্ছে না এ ট্রফি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ