প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বলিউডকে কাঁপিয়ে দেওয়া #মি টু ঝড়ের ধাক্কায় তছনছ হচ্ছে নতুন ছবিগুলো

মুসফিরাহ হাবীব : ‘#মি টু’ আন্দোলনে নারীরা ছবিগুলোতে জড়িত অভিনেতাসহ পরিচালকদের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তোলায় সরে দাঁড়িয়েছেন ছবির মূল অভিনেতারা। ফলে মুখ থুবড়ে পড়েছে ছবিগুলো। আবার কয়েকটি ছবির শুটিং শুরু হয়েও তা বন্ধ হয়ে গেছে।

নানা পাটেকার, অলোক নাথের মতো অভিনেতা ছাড়াও সাজিদ খান, সুভাষ কাপুর, বিকাশ বহেল, লাভ রঞ্জনের মতো নামী পরিচালকদের বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ উঠেছে তাতে তাদের ব্যক্তিগত জীবনের পাশাপাশি পেশাগত জীবনেও অশুভ ছায়া পড়ছে।

এরই মধ্যে বলিউডের চার পরিচালকের চারটি ছবি #মি টু আন্দোলনের জেরে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এগুলো হচ্ছে :

সুপার থার্টি:

ছবিটির মূল অভিনেতা হৃতিক রোশন। আর ছবির পরিচালক বিকাশ বহেল। তার বিরুদ্ধে কঙ্গনা যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তোলার পর হৃতিক রোশন এর প্রতিবাদে ছবির কাজ বন্ধ করেছেন। বিকাশের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও শাসিয়েছেন তিনি। ছবিটির মুক্তি পিছিয়ে যেতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।

হাউসফুল ফোর:

ছবিটির পরিচালক সাজিদ খান। তিনজন নারী তার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনেছেন। এর মধ্যে আছেন বলিউড তারকা বিপাশা বসুও। সাজিদের বিরুদ্ধে অভিযোগের জেরেই ছবিটির মূখ্য অভিনেতা অক্ষয় কুমার ছবির শুটিং বন্ধ করেছেন। সাজিদকে ছবিটি পরিচালনার দায়িত্ব থেকে সরে যেতেও বলেছেন অক্ষয়। এ ছবির অন্যতম প্রধান চরিত্রে ছিলেন বলিউডের নামকরা অভিনেতা নানা পাটেকার। কিন্তু ‘#মি টু’ আন্দোলনে তিনিও অভিযুক্ত। তনুশ্রী দত্ত তার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ করেছেন। ফলে নানা কে ছবি থেকে সরে যেতে হচ্ছে। তার জায়গায় আসবেন অন্য অভিনেতা। নানা পাটেকার যে দৃশ্যগুলোতে অভিনয় করেছিলেন নতুন অভিনেতাকে সেগুলো আবার গোড়া থেকে অভিনয় করতে হবে।

মুঘল

‘মুঘল’ ছবির পরিচালক সুভাষ কাপুরের বিরুদ্ধেও যৌন হেনস্থার অভিযোগ ওঠায় এর প্রতিবাদে আমির খান ছবিটি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। ২০১২ সালে অভিনেত্রী গিতীকা ত্যাগীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ আছে সুভাষ কাপুরের বিরুদ্ধে। আমির খান এসবকিছু জানতে পারার পর ছবি না করার সিদ্ধান্ত নেন। ছবিটির নির্মাতাও পরিচালক সুভাষকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছেন।

দে দে পেয়ার দে
‘সোনু কে টিটু কি সুইটি’র মতো হিট ছবির পরিচালক লাভ রঞ্জনের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগের জেরে প্রশ্নের মুখে পড়েছে ‘দে দে প্যায়ার দে’ ছবির ভবিষ্যৎ। অজয় দেবগান ও রণবীর কাপুর এ ছবিতে অভিনয় করছেন। ২০১৯ সালেই যে ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা। কিন্তু লাভ রঞ্জনের বিরুদ্ধে অভিনেত্রীদের অভিযোগের পর অজয় দেবগান এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। ছবিটি প্রযোজনার দায়িত্বে থাকা অজয়ের প্রযোজনা সংস্থা ছবিটি থেকে সরে দাঁড়িয়েছে।

এতগুলো ছবির ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় কোটি কোটি রূপি লোকসানের মুখে পড়েছে বলিউড। চলচ্চিত্র জগতের একাধিক ব্যক্তির ভবিষ্যতও পড়েছে হুমকির মুখে।

আন্দোলনের ঢেউ বলিউডের অর্থনীতির বুকে আছড়ে পড়েছে। আজ ‘#মি টু’র প্রভাবে বিটাউনের কোটি কোটি টাকা আটকে আছে। এই মুহূর্তে চারটি ছবি এই আন্দোলনের শিকার হয়েছে। আর তার জন্য ফেঁসে আছে ৪৫০ কোটি রুপি!

এক প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়েছে। ছবিটি প্রযোজনার দায়িত্বে আছে অজয়ের প্রযোজনা সংস্থা। লাভ রঞ্জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর অজয় এই ছবি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। এই বলিউড সুপারস্টারের বক্তব্য, তাঁর কোম্পানি যৌন উৎপীড়নের মতো দোষে দোষী কোনো ব্যক্তির পাশে নেই। এই ছবির বাজেট ১০০ কোটি রুপি।

 

‘মুঘল’ ছবিতে প্রথমে অক্ষয় কুমারের অভিনয় করার কথা ছিল। পরে আমির খানকে এই ছবির সঙ্গে যুক্ত করা হয়। সুভাষ কাপুরের বিরুদ্ধে দীর্ঘ দিন ধরে যৌন হেনস্তার মামলা চলছে, এই কথা আমিরের কানে যাওয়ার পর তিনি এই ছবি থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন। ছবিটির নির্মাতা ভূষণ কুমার পরিচালক সুভাষ কাপুরকে পরিচালনার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেন। এদিকে গুলশান কুমারের ছেলে ভূষণ কুমারের বিরুদ্ধেও যৌন উৎপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। সংগীত জগতের অলিখিত সম্রাট গুলশান কুমারের জীবনের ওপর ১০০ কোটি রুপি বাজেটের এই ছবিটি নির্মাণ হচ্ছে।

নির্মাতাদের শুটিং বন্ধ রাখার অনুরোধ জানান। ‘হাউসফুল ফোর’-এর নির্মাতারা জানা গেছে, এখন সাজিদের বদলে ফরহাদ সামজি ছবিটি পরিচালনা করবেন। এই ছবির অন্যতম প্রধান চরিত্রে বলিউডের শক্তিমান অভিনেতা নানা পাটেকার ছিলেন। কয়েকটা দৃশ্যের তাঁর শুটিং হয়েছে। কিন্তু এবার ‘#মি টু’ আন্দোলনের প্রথম অভিযুক্ত নানা পাটেকার। বলিউড তারকা ও সাবেক ভারত সুন্দরী তনুশ্রী দত্ত তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন। আর তার জেরে ‘হাউসফুল ফোর’ থেকে নানা সরে যাচ্ছেন। তাঁর জায়গায় বলিউড অভিনেতা অনিল কাপুর আসছেন। সম্প্রতি জয়সলমীরে নানা পাটেকার এই ছবির কিছু দৃশ্যের শুটিং সেরে ফেলেছেন। তাই তাঁর জায়গায় নতুন যে অভিনেতা আসবেন, তাঁকে আবারও সেই দৃশ্যগুলো শুট করতে হবে। ‘হাউসফুল ফোর’ ছবিতে অক্ষয় কুমার ছাড়া সঞ্জয় দত্ত ও ববি দেওলকেও দেখা যাবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ