প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হারাতে বসেছে ফরিদপুরের শতবর্ষী হিজল গাছ

জুয়েল খান : ফরিদপুর জেলার কানাইপুর ইউনিয়নের রামখন্ড গ্রামে একশত বছরের বেশি সময় ধরে দাঁড়িয়ে আছে পুরোণো একটি হিজল গাছ। গাছটির আনুমানিক বয়স একশত বছরেরও বেশি। কালের সাক্ষ্য বহনকারি এই হিজলগাছটি রক্ষণাবেক্ষণের আভাবে বর্তমানে মৃতপ্রায়।

অযত্ন আর অবহেলায় হারাতে বসেছে ফরিদপুরের শতবর্ষী হিজল গাছটি। গাছটির অধিকাংশ শাখা প্রশাখা মরে যাওয়ায় গাছটি তার ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। কিছুদিন আগে ঝড়ের কবলে পরে গাছটির মরা শাখা-প্রশাখাগুলো ভেঙ্গে পড়ে। তবে বনবিভাগের তরফ থেকে একটা সাইনবোর্ড লাগানো থাকলেও রক্ষণাবেক্ষণ না করায় ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসি। এলাকাবাসির দাবি কালের সাক্ষী শতবর্ষী এই গাছটিকে বাঁচাতে প্রশাসন দ্রত পদক্ষেপ নেবে।

প্রাচীন এই গাছটিকে বাঁচাতে বনবিভাগের সহযোগিতা কামনা করেন স্থানীয় জন প্রতিনিধি। কানাইপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফকির মো. বেলায়েত হোসেন বলেন, যেহেতু এই গাছটি আমাদের ঐতিহ্য বহন করে যাচ্ছে। তাই প্রাকৃতিকভাবে এই গাছটিকে কিভাবে বাঁচিয়ে রাখা যায় বনবিভাগের কাছে আমাদের সেই দাবি।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, শতবর্ষী এই গাছটিকে বাঁচাতে জেলা প্রসাশনের পক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তিনি জানান, বজ্রপাতে গাছটির অধিকাংশ শাখাপ্রশাখা নষ্ট হয়ে গেছে। বনবিভাগ এবং বিশেষজ্ঞদের সাথে কথা বলে যতদ্রুত সম্ভব রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। কালের সাক্ষী শতবর্ষী এই হিজল গাছটিকে বাঁচাতে বনবিভাগের তরফ থেকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এমনটাই আশা ফরিদপুর বাসির। নিউজ২৪.

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ