প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার রোধে কনটেন্ট ফিল্টারিং করবে সরকার

সাজিয়া আক্তার : নির্বাচনের আগে ফেসবুকসহ সকল সামাজিক মাধ্যমে কনটেন্ট ফিল্টারিং করবে সরকার। এজন্য নির্ধারিত সময়ের আগেই এবিষয়ক প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ করছে টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তর। তবে সরকারি উদ্যোগ নিয়ে সংশয় জানিয়ে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সব ধরনের কনটেন্ট ফিল্টারিং প্রায় অসম্ভব। (সূত্র: ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন)

রাজধানীতে বাস দুর্ঘটনায় দুই স্কুল শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় গত আগস্টে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন করেন ছাত্র-ছাত্রীরা। সে আন্দোলনের সময় ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে রাজধানীতে কয়েকজনকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এই ঘটনার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার রোধে নড়েচড়ে বসে সরকার।

২০১৭ সালের এপ্রিলে জাতীয় নিরাপত্তা, সার্বভৌমত্ব ও মূল্যবোধ পরিপন্থি কনটেন্ট বন্ধ করতে প্রকল্প হাতে নেয় সরকার। ১৫০ কোটি টাকার এই প্রকল্প ২০১৯ সালের মে মাসে কথা থাকলেও নির্বাচনের আগেই তা বাস্তবায়নের চেষ্টা চলছে বলেন টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী।

তথ্য ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা চেষ্টা করবো নভেম্বর-ডিসেম্বর, এই দুই মাস যেনো আমাদের প্রযুক্তি ব্যবহার করে এর অপব্যবহার রোধ করতে পারি। আমরা পুরো টিমকে নিয়ে বসেছি, সেখানে তারা আশ্বস্ত করেছে, প্রকল্পটি নভেম্বর থেকে ব্যবহার করা যাবে।

তবে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু কনটেন্ট ফিল্টারিং করা সম্ভব হলেও দীর্ঘমেয়াদে শতভাগ কনটেন্ট নজরদারি করা সম্ভব না। কিন্তু তাদের ধারণা কনটেন্ট ফিল্টারিং হলে সাধারণ মানুষ বিভ্রান্তির হাত থেকে রক্ষা পাবে।

সামাজিক মাধ্যমে অপপ্রচার বন্ধে সচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি সংবাদমাধ্যমকে আরও বেশি সক্রিয় হওয়ার পরামর্শ বিশ্লেষকদের।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ