প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইতোমধ্যে গলে গেছে আর্কটিকের অর্ধেক স্থায়ী বরফ!

আসিফুজ্জামান পৃথিল : জলবায়ু পরিবর্তনে ইতোমধ্যেই বড় রকমের ক্ষতি হয়ে গেছে মেরু অঞ্চলের বরফের। আর্কটিকের স্থায়ী বরফের চাদরের অর্ধেকই গলে গেছে। আর মানুষ এখনও ব্যস্ত জলবায়ু পরিবর্তনে মানুষের ভুমিকা রয়েছে কিনা এ বিতর্ক নিয়ে!

নাসার গবেষণা অনুযায়ী প্রাগৌতিহাসিককালে জন্ম নেয়া এ চাদর এখন আগের চাইতে অনেক পাতলা! সম্মিলিত স্যাটেলাইট তথ্য এবং সাবমেরিনের সোনার ব্যবহার করে এ গবেষণা চালানো হয়েছে। এতে জানা গিয়েছে বর্তমানে সামুদ্রিক বরফের ৭০ শতাংশই মৌসুমি বরফ। প্রতিবছর এ ধরণের বরফ জমাট বাঁধে ও গলে যায়। অস্থায়ী ও অর্বঅচিন এ বরফ দ্রুত জমাট ধলেও তা বিশ্বের সামষ্টিক পরিবেশ এবং প্রতিবেশের জন্য সুখবর নয়। এ ধরণের বরফ কখনই প্রাচীন এবং স্থায়ী বরফের ইতিবাচক ভূমিকা নিতে সক্ষম নয়।

বৈশ্বিক উষ্ণতা এভাবে বৃদ্ধি পেতে থাকলে ভবিষ্যতে গ্রীষ্মকালে বরফ গলার হার আরো বৃদ্ধি পাবে। এ প্রকল্পের প্রধান গবেষক এবং নাসা’র বিজ্ঞানী রন কোক এ বিষয়ে বলেন, ‘উত্তর মেরুর স্থায়ী ও পুরু বরফের স্থর দ্রুত কমে যাচ্ছে। সে জায়গাি নয়ে নিচ্ছে অস্থায়ী ও পাতলা বরফ।’
সকল সামুদ্রিক বরফ একই রকম আচরণ করে না। কিছু বরফ গলার মৌসুমেও অটুট থাকে। এগুলো ব্লু আইস নামে পরিচিত। এ বরফও এখন গলছে। এ ধরণের বরফ বহুস্থর বিশিষ্ট। এগুলো কয়েক হাজার মিটার পর্যন্ত পুরু। যার বারো ভাগের ১১ ভাগই থাকে পানির নিচে। আর তরুণ বরফ সর্বোচ্চ ৬ মিটার পর্যন্ত পুরু। আধুনিক স্যাটেলাইট এবং সোনার এ ধরণের বরফের সুস্পষ্ট পার্থক্য করতে সক্ষম। সায়েন্স অ্যালার্ট

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত