প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুর্নীতি মুক্ত সমাজ গড়তে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার প্রয়োজন রয়েছে: দুদক চেয়ারম্যান

এস এম এ কালাম: দুর্নীতি মুক্ত সমাজ গড়তে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার প্রয়োজন রয়েছে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। তিনি বলেন, সংবাদপত্র না থাকলে আমরা থাকি না বিশেষ করে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা না থাকলে দুদক টিকবে না। একই সঙ্গে দুদকের দুর্নীতি নিয়ে যে কোনো অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করলে ভয় বা হয়রানি করা হবে না বলেও জানান তিনি।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর প্রেস ইনস্টিটিউট কার্যালয়ে দুদক বিটের সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রিপোর্টার্স অ্যাগেইনেস্ট করাপশন (র‌্যাক) ও পিআইবির যৌথ উদ্যোগে তিন দিনের এই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীরের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাসসের প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ ও পিআইবির পরিচালক আনোয়ারা বেগম।

ডিজিটাল আইন প্রসঙ্গে চেয়ারম্যান বলেন, ৫৭ ধারা বা ডিজিটাল আইন সম্পর্কে আমার তেমন ধারণা নেই। তবে আপনাদের কোনো ভয়ের কারণ নেই। দুদকের প্রাতিষ্ঠানিক বিষয় নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করবেন। দুদক এসব সংবাদকে স্বাগত জানাবে। দুদকের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিবেদনের জন্য মামলা-টামলা হবে না। এমনকি এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিবেদনের জন্য দুদকের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ করা হয়নি। অনুসন্ধান করবেন, আপনাদের কোনো ভয় নেই। নির্ভয়ে আপনারা অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা করেন।

তিনি বলেন, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে সত্য প্রকাশ করবেন। আমি আপনাদের পক্ষে বলতে চাই, আমার বিরুদ্ধেই হোক, দুদকের বিরুদ্ধে হোক, যে কোন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে; আপনারা লিখবেন। অনুসন্ধানের তথ্য যদি আপনারা না দেন তাহলে প্রতিষ্ঠান চলবে না। আপনারা যদি আমাকে চ্যালেঞ্জ না করেন, আমি শুধরাবো না। আপনারা প্রশ্ন করবেন, কিছু উত্তর দেবো, সব প্রশ্নের উত্তর হয়তো আমি দেবো না বা দিতেও পারবো না। সাংবাদিকতার মূল বিষয় হচ্ছে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা। সাংবাদিকতা চলমান থাকুক। আপনারা নিরুৎসাহিত হবেন না।

অনুষ্ঠানে বাসসের প্রধান সম্পাদক বলেন, সাংবাদিকতা হচ্ছে মানুষের জন্য কাজ করা, দেশের জন্য কাজ করা। সাংবাদিকতা করে মানুষের জন্য বা দেশের জন্য কাজ করবো না সেক্ষেত্রে ঝুঁকি তো আছেই। তিনি বলেন, যারা প্রকৃত সাংবাদিকতা করে তাদের ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই। বিবেককে সামনে রেখে কাজ করতে হবে যাতে ভাল মানুষ কোন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

ডিজিটাল আইন নিয়ে সাংবাদিকদের ভীতি প্রসঙ্গে পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীর বলেন, সাংবাদিকতা কোনো আইন দিয়ে থেমে থাকেনি। আইন করে কোনো ভালো কাজকে আটকানো যাবে না। আইন হয় খারাপদের জন্য। কাজেই আইন নিয়ে ভীত হওয়ার কোনো কারণ নেই।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন র‌্যাকের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ ও সংগঠনের সাবেক সভাপতি মিজান মালিক প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ